ফুলবাড়ীতে ভুট্টা চাষ বাড়ছে

দিনাজপুর ফুলবাড়ীতে প্রতি বছর ইরি-বোরো মৌসুমে ধানের মূল্য কম পাওয়ায় স্বল্প খরচে অধিক লাভের আশায় দিন দিন ভুট্টা চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের।

ফুলবাড়ী উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় পৌর এলাকাসহ ৭ টি ইউনিয়নে ৩ হাজার ৩০  হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এদিকে উপজেলা কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তরের হিসেব মতে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ৩ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ হয়েছে।  ভুট্টা চাষে খরচ কম অথচ ফলন ভালো ও দাম বেশি পাওয়ায় কৃষকদের মধ্যে ভুট্টা চাষের আগ্রহ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে বলেও জানান কৃষি বিভাগ।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে সবুজে ঘেরা অধিকাংশ ভুট্টা ক্ষেতে  কলা বের হওয়া শেষ হয়েছে। হয়তো কদিন পরেই স্বপ্নের ফসলের প্রক্রিয়াজাত শুরু হবে। বুকবাঁধা স্বপ্ন নিয়ে বৈশাখের এই বাতাসে দুলছে কৃষকের স্বপ্ন।

স্থানীয় কৃষকদের সাথে কথা বলে জানাগেছে, অন্যান্য ফসলের তুলনায় ভুট্টার ফলন বেশি হওয়ায় কৃষকরা ধান গমের পাশাপশি ভুট্টা চাষে বেশ আগ্রহ দেখাচ্ছে। কৃষি অফিসের পরামর্শে আগাম জাতের ভুট্টা রোপন করায় নিবিড় পরিচর্যা আর রোগ বালাই কম হওয়ার ফুলবাড়ীতে চলতি মৌসুমে ভুট্টার বাম্পার ফলন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রান্তিক কৃষকরা। কিন্তু ফলন ভালো হলেও করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের চলমান লকডাউনে ফসলের বাজারজাতকরণ করতে না পারার আশংকায় দিন কাঁটছে কৃষকদের।

খয়েরবাড়ি ইউনিয়নের বারাই পাড়া গ্রামের হামিদুল্লাহ সরকার,বেতদিঘী ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের মোঃ তোফাজ্জল হোসেন বলেন, ইরি-বোরো ধান চাষের পাশাপাশি আমরা গত বছর থেকে ভুট্টার চাষ করছি। রোগ বালাই কম ফলন বেশি এবং ভুট্টা কাটা মাড়াইয়ের সময় বাজার দর ভালো থাকায় অল্প খরচে অধিক লাভ হওয়ার কারনে এবারও ভুট্টার আবাদ করেছি। শেষ মুহূর্তে আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে চলতি মৌসুমে ভুট্টার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে।

শিবনগর এলাকায় কৃষক হামিদুল হক জানান, করোনার দ্বিতীয় টেউ মোকাবিলায় সরকার ঘোষিত চলমান লকডাউন বাড়তে থাকলে পরিবহন সমস্যার কারণে ভুট্টার সঠিক বাজার মূল্য না পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশী। এ অবস্থায় সরকার বিকল্প উপায়ে কৃষকের উৎপাদিত স্বপ্নের ফসলের ন্যায্য মূল্যে বিক্রয়ের ব্যবস্থা করবেন এমনটিই প্রত্যাশা সকল কৃষকের।

ফুলবাড়ী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোছাঃ রুম্মান আক্তার বলেন, বর্তমান সরকারের টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের লক্ষ্যে নিরাপদ খাবার এবং পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবারের প্রতি প্রধানমন্ত্রী সদয় নির্দেশনা দিয়েছেন, এরই ধারাবাহিকতায় ফুলবাড়ী উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় ভুট্টা আবাদ হচ্ছে। সকল প্রকার ফসল উৎপাদনে আমরা কৃষকদের আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করছি। এলাকার কৃষকরা যাতে ভুট্টা যথাযথভাবে উৎপাদন করতে পারে এবং স্বল্প খরচে উচ্চ ফলনশীল ভুট্টা উৎপাদন করতে পারে এ জন্য আমরা প্রতিনিয়ত কৃষকদের নিকট গিয়ে পরামর্শ প্রদান করছি। এবার ভুট্টার আবাদি জমি বৃদ্ধি পেয়েছে সেইসাথে আবহাওয়া ভালো থাকায় বাম্পার ফলনের সম্ভাবনাও রয়েছে।