কল্পরেখা’র শিশু-উৎসবে ‘মুজিব বাড়ি’

ad

তারেক আলী মিলন : শিশু কিশোরদের সাংস্কৃতিক জগতের সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে ‘কোমল প্রাণের প্রদীপ’ স্লোগানে দেশের গুণি আবৃত্তি প্রশিক্ষক ও নির্দেশক মীর বরকত এবং তামান্না তিথি’র হাত ধরে ২০১০ সালের ২ জুলাই আত্মপ্রকাশ করেছিল শিশু সংগঠন ‘কল্পরেখা’। কোমল প্রাণের প্রদীপ ‘কল্পরেখা’ ষষ্ঠ বর্ষ অতিক্রম করেছে।GGCB KOLPO (6)

এ উপলক্ষে ২০শে আগস্ট শনিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত, আবৃত্তি ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে এক শিশু উৎসবের আয়োজন করে এই শিশু সংগঠনটি। প্রথম পর্বে শিশু কিশোরদের শুভাশিস ও সনদ বিতরণ, দ্বিতীয় পর্বে আবৃত্তি, গল্পবলা ও উপস্থাপনা এবং তৃতীয় পর্বে শিশু চলচ্চিত্র প্রদর্শনসহ ছিল নানা আয়োজন।

আয়োজনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ এবং বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য গোলাম সারোয়ার। তামান্না তিথি’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মীর বরকত।GGCB KOLPO (7)

কোমল শিশু কিশোরদের উপস্থাপনাগুলোর মধ্যে অন্যতম ছিল ‘মুজিব বাড়ি’, ‘বর্ণমালার গল্প’,’রানী যাবেন বাপের বাড়ি’, ‘ফলের রাজা’, ‘পড়শি’, ‘বাঘের সাজা’, ‘ষড়যন্ত্র’, ‘ধান সুপারি পান সুপারি’, শিরোনামে গল্প, ছড়া ও কবিতা আবৃত্তি।

‘মুজিব বাড়ি’র শ্লোগানে শ্লোগানে মিলনায়তনে উপচে পড়া উপস্থিত দর্শক-শ্রোতারা শিশুদের স্বতস্ফূর্ত রকমারি ও বহুবর্ণিল পরিবেশনা মুগ্ধ হয়ে উপভোগ করেন এবং মুহুর্মুহু করতালিতে তাদেরকে উৎসাহিত করেন। পরিবেশনায় অংশগ্রহণকারী শিশুশিল্পীরা হল কাব্য, মুগ্ধ, মূর্ছনা, রাইয়ান, মম, নাফিজ, সামিয়া, ফাইজা, মাহিম, কিন্নরী, রাইয়ান, একান্ত, আনুভা, চেতনা, নম্রতা, ফারাজ, জুনায়েদ, সুবাইতা, মিথিলা, অনীলা, পদ্ম, গল্প ও স্বপ্ন।GGCB KOLPO (2)

সবশেষে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রযোজিত ও সুমনা সিদ্দিকী পরিচালিত স্বল্পদৈর্ঘ্য শিশু চলচ্চিত্র ‘মাধো’ প্রদর্শন করা হয়।

ad