কোটা সংস্কার আন্দোলন স্থগিত করছে আন্দোলনকারীরা

Quota reform, TSC to demand, blockade,
ad

জাগরণ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে কোটা পদ্ধতি বাতিলের ঘোষণার প্রেক্ষিতে লাগাতার আন্দোলন চালিয়ে আসা শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রত্যাশীরা আন্দোলন স্থগিত করার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১২ এপ্রিল) ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খান গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, আমরা কিছু মানুষের সঙ্গে পরামর্শ করলাম। তারা বললেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেসব সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তা যথেষ্ট ভালো এবং গ্রহণযোগ্য। এরপর আমরাও সিদ্ধান্ত নিলাম, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যা বলেছেন, আমরা সে সিদ্ধান্ত মোতাবেক চলবো।

রাশেদ খান বলেন, সকাল ১০টায় আমাদের একটা প্রেস ব্রিফিং আছে, সেখানে আমরা সব কিছু আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবো। অন্যান্য বিষয়ে আমাদের আরও কিছু কথা বলার আছে, সেগুলো বলবো।

ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. উজ্জ্বল মিয়া গণমাধ্যমকে বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের প্রতি আস্থা রেখে আমরা আমাদের আন্দোলন প্রত্যাহার করে নিচ্ছি। আমরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে শুধু একটাই অনুরোধ করব, কোনো মামলা দিয়ে আমাদের সাধারণ আন্দোলনকারীদের যেন হয়রানি করা না হয়।

তবে ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন বলেছেন, প্রজ্ঞাপন জারি করার পর যদি বুঝি আমাদের ন্যায্য দাবি প্রত্যাশা অনুযায়ী পূরণ হয়নি, তখন আমরা আরো কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো। তবে আমরা প্রধানমন্ত্রী বরাবর ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে একটি চিঠি দেবো। যারা কোটার প্রাপ্য দাবিদার, তারা কোটা পাক, এটা আমরাও চাই। যেমন মুক্তিযোদ্ধা কোটা এবং প্রতিবন্ধী কোটার দাবিদারদের কোটা দিতে ওই চিঠিতে আহ্বান জানাবো। তবে সেটা যেন প্রাপ্য পরিমাণযোগ্য হয়।

ad