জেএমবির শীর্ষ নেতা সাইদুরের সাড়ে ৭ বছরের কারাদণ্ড

JMB Saidur
ad

জাগরণ ডেস্ক: সন্ত্রাসবিরোধী আইনে দায়ের করা মামলায় নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) শীর্ষ নেতা সাইদুর রহমানসহ তিনজনের ৭ বছর করে কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

একইসঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে।

মামলার অপর এক ধারায় ছয় মাসের কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকার বিশেষ জজ-৬ এর বিচারক ইমরুল কায়েস এ রায় ঘোষণা করেন।

মামলার অপর আসামিরা হলেন- আবদুল্লাহেল কাফী ও তার স্ত্রী আয়েশা আক্তার। তারা এ মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন নেয়ার পর পলাতক রয়েছেন।

রায় ঘোষণাকালে সাইদুর রহমান আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

গত ১৮ মে মামলার যুক্তিতর্ক শুনানি শেষে রায় ঘোষণার জন্য আজকের দিন ধার্য করেছিলেন আদালত।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১০ সালের ২৫ মে কদমতলী থানার দনিয়া এলাকার একটি বাসায় আসামিদের কাছ থেকে নিষিদ্ধ জঙ্গি বই ও প্রচারপত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় মাওলানা সাইদুর রহমানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে রাজধানীর কদমতলী থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে একটি মামলা দায়ের হয়।

এরপর ২০১১ সালের ১৬ জানুয়ারি আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণের মধ্যে দিয়ে ঢাকার ৬ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে এ মামলার বিচার শুরু হয়।

বিচারিক কার্যক্রম শেষে আজ আদালত এই ঘোষণা করেন।

ad