ডিআইজি মিজানকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুদক

DIG Mizan, withdrawal,
ad

জাগরণ ডেস্ক: ক্ষমতার অপব্যবহার, অবৈধ সম্পদ অর্জন ও দুর্নীতির অভিযোগে বহুল আলোচিত পুলিশের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বৃহস্পতিবার (৩ মে) সকাল ৯টায় দুদক কার্যালয়ে উপস্থিত হন ডিআইজি মিজান। দুদকের উপ-পরিচালক ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা (পিআরও) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য জানান, মিজানের বিরুদ্ধে নামে-বেনামে শত কোটি টাকার সম্পদ অর্জনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া, ক্ষমতার অপব্যবহার করে এক নারীকে তুলে নিয়ে বিয়ে করারও অভিযোগ আছে।

তিনি জানান, ডিআইজি মিজান পুলিশের উচ্চ পদে থেকে তদবির, নিয়োগ, বদলিসহ নানা অনিয়ম-দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েন। চাকরি জীবনে তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করে নানা উপায়ে শত কোটি টাকার মালিক হয়েছেন। এসব বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যই তাকে দুদকে তলব করা হয়।

ডিআইজি মিজানুর ঢাকা মহানগর পুলিশে (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। গত জানুয়ারির শুরুর দিকে তাকে প্রত্যাহার করে পুলিশ সদর দপ্তরে সংযুক্ত করা হয়।

প্রসঙ্গত, এ বছরের জানুয়ারিতে পুলিশের উপ মহাপরিদর্শক মিজানের বিরুদ্ধে স্ত্রী-সন্তান রেখে আরেক নারীকে জোর করে বিয়ের অভিযোগ ওঠা। পরে ওই নারীকে নির্যাতন ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে জেলে পাঠানোরও অভিযোগ উঠে।

এছাড়া তার বিরুদ্ধে এক সংবাদ উপস্থাপিকাকে বিভিন্নভাবে হয়রানি ও হত্যার হুমকি দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে।

বিতর্কিত এ পুলিশ কর্মকর্তার নামে-বেনামে শত কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে বলে অভিযোগ পেয়েছে দুদক। অভিযোগে বলা হয়েছে, ডিআইজি মিজানের নামে-বেনামে বহু সম্পদ রয়েছে যা তার আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়। এছাড়া তার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে। এসব অভিযোগ আমলে নিয়ে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় দুদক।

ad