সাভারে ‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযান শেষ

saver-militant
ad

জাগরণ ডেস্ক: সাভারের ‘জঙ্গি আস্তানায়’ পুলিশের অভিযান শনিবার বেলা সাড়ে তিনটায় শেষ হয়েছে।

এর আগে শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দ্বিতীয় দিনের মতো এ অভিযান শুরু করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট।

সাভারের মধ্য গেন্ডা এলাকায় নির্মাণাধীন একটি ছয়তলা বাড়িতে সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শেষ হয়েছে।

শনিবার দুপুর সোয়া ১২টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত দফায় দফায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিকাল তিনটার দিকে অভিযান শেষ হওয়ার কথা জানান ঢাকার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আজিম।

তবে পালিয়ে যাওয়া জঙ্গিদের ধরতে সাভারের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের বিশেষ অভিযান শুরু হয়েছে। এর আগে দুপুরে বোমা ডিসপোজাল ইউনিটের মাধ্যমে উদ্ধার করা ৯টি বোমা বিস্ফারণ ঘটানো হয়।

এসময় বিকট শব্দে এলাকা জুড়ে ব্যাপক আতংকের সৃষ্টি হয়। তবে এ অভিযানে কোন জঙ্গিকেই গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

নির্মাণাধীন ওই ছয়তলা বাড়ির দোতলার ফ্ল্যাটে এ অভিযানে সাতটি গ্রেনেড, তিনটি সুইসাইডাল ভেস্ট, ল্যাপটপ, বোমা তৈরির সার্কিটসহ নানা মালামাল উদ্ধার করা হয় বলেও তিনি জানান।

পরবর্তীতে পুলিশের ব্রিফিংয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান তিনি।

এ ঘটনায় ৬তলা বাড়ির মালিকসহ দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। বেলা পৌন ১১টায় বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল আসার ঘণ্টাখানেক পর থেকে দুই ঘণ্টার মধ্যে ৯টি বিকট বিস্ফোরণ ঘটে।

সাভার পৌরসভার গেন্ডা এলাকায় আনোয়ার হোসেন নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঘিরে অভিযান চালায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।

তবে ওই বাড়ির সন্দেহভাজন ভাড়াটিয়ারা শুক্রবার সকালেই বাসা ছেড়ে চলে যায় বলে পুলিশ জানায়। এরপর রাত সাড়ে ৯টার দিকে অদূরে আরেকটি নির্মাণাধীন ছয়তলা বাড়িতে অভিযান শুরু করে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।

ad