চারটি ব্যাটারির জন্য নৃশংস হত্যা

গোপালগঞ্জে সোহান সিকদার (১৮) নামে এক ইজিবাইক চালককে গলাকেঁটে হত্যা করা হয়েছে। পরে ইজিবাইক থেকে ব্যাটারি খুলে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সাতপাড় ইউনিয়ণ ভূমি অফিসের কাছ থেকে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে।

নিহত সোহান সিকদার গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়নের নিলখী গ্রামের গোলাম সিকদারের ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ একই ইউনিয়নের গোলাবাড়িয়া গ্রামের আলাল ফরাজীর ছেলে শাওন ফরাজীকে (২৫) আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, রবিবার রাতে শাওন ফরাজী গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সাতপাড় এলাকায় কবিগান শুনতে যাওয়ার জন্য সোহান সিকদারের ইজিবাইক ভাড়া করে। রাতে সোহান সিকদার বাড়িতে না ফেরায় তার পরিবারের লোকজন তাকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি করে কোনো সন্ধান পাননি। পরে স্থানীয় লোকজন করপাড়া এলাকায় মধুমতি নদীর বিলরুট ক্যানেলের মধ্যে ফেলে দেয়া ইজিবাইক দেখে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সোহান সিকদারের ইজিবাইকটি উদ্ধার করে।

এদিকে, ইজিবাইক উদ্ধার হওয়ার পর নিহতের স্বজনরা ওই শাওন ফরাজীকে খুঁজে বের করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশের কাছে সে সোহান শিকদারকে হত্যার কথা স্বীকার করে। সে বর্তমানে গোপালগঞ্জের বৌলতলী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য লিখুন :