কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ সদস্যকে কুপিয়ে জখম

কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের সদস্য মামুন অর রশিদ ও তার ছোটভাই আলিম হোসেনের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। গুরুতর আহত মামুনকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার (২ মে) রাত সাড়ে ১১টার দিকে সদর উপজেলার আলামপুর ইউনিয়নের দরবেশপুর এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে।

মামুন অর রশিদ আলামপুর ইউনিয়নের দরবেশপুর গ্রামের বাসিন্দা এবং কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের ৯ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য।

আহত মামুনের আরেক ছোটভাই এনামুল সাংবাদিকদের জানান, রবিবার রাতে বড়ভাই মামুন ব্যক্তিগত গাড়িতে করে ভাদালিয়া বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে দরবেশপুর কালভার্টের কাছে পৌঁছালে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তাদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাদেরকে জখম করে। তাদের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তার মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করা হয়েছে বলে চিকিৎসকরা জানান। এছাড়া গাড়ির জানালার কাঁচ ভেঙে চোখের পাশে ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে মামুনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের নানা অভিযোগ রয়েছে। তার নামে একাধিক মামলাও রয়েছে। র‌্যাবের সোর্স হিসেবে সে কাজ করতো বলে একটি সূত্র জানিয়েছে।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত কবির জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।