ইসলামপুরে মাদ্রাসা থেকে ৩ ছাত্রী নিখোঁজ

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় একটি আবাসিক মাদ্রাসা থেকে ৩ শিশু ছাত্রী নিখোঁজের ঘটনা ঘটেছে।

এ ব্যাপারে সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের উদ্ধারে মাদ্রাসার মুহতামিম ইসলামপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। জিডি নম্বর- ৫১১। গত রবিবার ভোর রাতে তারা নিখোঁজ হয়।

নিখোঁজ শিক্ষার্থীরা হলো, উপজেলার গাইবান্ধা ইউনিয়নের পোড়ারচর সরদারপাড়া গ্রামের মাফেজ শেখের মেয়ে মীম আক্তার (৯), গোয়ালেরচর ইউনিয়নের সভুকুড়া মোল্লাপাড়া গ্রামের মনোয়ার হোসেনের মেয়ে মনিরা (১১), এবং সভুকুড়া গ্রামের সুরুজ্জামানের মেয়ে সূর্যবানু (১০)।

ইসলামপুর থানা সূত্রে জানা যায়, নিখোঁজ ওই তিন শিশু ছাত্রী গোয়ালেরচর ইউনিয়নের মেজর জেনারেল খালেদ মোশাররফ বীরউত্তম সেতুর পুর্বপাড়স্থ বাংলা বাজার এলাকালার দারুত তাক্বওয়া মহিলা ক্বওমী মাদরাসার দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী।

দারুত তাক্বওয়া মহিলা মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা মো. আসাদুজ্জামান জানান, 'নিখোঁজ ছাত্রীদের উদ্ধারে থানা জিডি করেছি। নিখোঁজ ওই তিন শিক্ষার্থী দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে। মাদ্রাসাটি আবাসিক হওয়ায় শিক্ষার্থীরা রাতে মাদ্রাসা কক্ষেই থাকে। ঘটনার দিন ভোর রাতে শিক্ষার্থীদের ফজরের নামাজ পড়ার জন্য ঘুম থেকে জাগ্রত করা হয়। অন্যান্যে ছাত্রীর মতোই নিখোঁজ শিশুরাও নামাজ পড়তে প্রস্তুতি নেয়। নামাজের পর তাদের আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।'

গোয়ালেরচর ইউনিয়ন বিট পুলিশের তদারকি কর্মকর্তা ইসলামপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই মাহমুদুল হাসান মোড়ল বলেন, 'ছাত্রী নিখোঁজের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। নিখোঁজ ছাত্রীদের উদ্ধারে চেষ্টা চালাচ্ছি।'

নিখোঁজ মীম আক্তারের মা হাসিনা বেগম বলেন, 'মীম আক্তার গত এক বছরই ধরে ওই মাদ্রাসায় দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে। ১৫ দিন আগে মীমকে মাদ্রাসায় রেখে আসি। রবিবার দুপুরে মাদ্রাসার হুজুর মীমের নিখোঁজের খবর দেন। মেয়ের নিখোঁজে ঘটনায় থানায় জিডি করা হয়েছে।'

নিখোঁজ মনিরার বাবা মনোয়ার হোসেন বলেন, '৯ দিন আগে মেয়েকে মাদ্রাসায় রেখে আসি। এখনও মেয়ের সন্ধান পাইনি।'

নিখোঁজ সূর্যবানুর বাবা সুরুজ্জামান বলেন, '১৫ দিন আগে মেয়েকে মাদ্রাসায় রেখে আসি। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও মেয়ের সন্ধান মিলছে না।'

ইসলামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাজেদুর রহমান জানান, 'নিখোঁজ শিক্ষার্থীর অভিভাবকেরা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। আমরা নিখোঁজ শিশু ছাত্রীদের খোঁজে বের করতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছি।'