গোপালগঞ্জে আরেক শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত

কোটালীপাড়ার পর এবার গোপালগঞ্জে পঞ্চম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ ঘটনার পর স্থানীয় প্রশাসন বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ওই কক্ষটি তালা বন্ধ করে দিয়েছে।

গোপালগঞ্জ পৌরসভার ১০২নং বীণাপানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী মোনালিসা ইসলাম-এর করোনা পজিটিভ আসে ২১ সেপ্টেম্বর। ওই শিক্ষার্থী পৌরসভা শিশুবন এলাকার মাসুদ শেখের মেয়ে।
 
বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাসের কারণে দেড় বছর বন্ধ থাকার পর ১২ সেপ্টেম্বর থেকে বিদ্যালয় পাঠদান শুরু হয়েছে। ওই দিন অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সাথে পাঠদানে অংশ নিয়ে মোনালিসা  ইসলাম। ১৪ সেপ্টেম্বর তার মাথা ব্যাথা ও জ্বর শুরু হয়। এরপর থেকে সে আর বিদ্যালয়ে আসেনি।

আক্রান্ত মোনালিসার মা মিতু খানম বলেন , এতো দিন আমার মেয়ে বাড়িতে ছিলো এবং সুস্থ ছিলো। গত ১২ সেপ্টেম্বর মেয়েকে বিদ্যালয়ে পাঠাই ১৪ সেপ্টেম্বর সে মাথা ব্যাথা হালকা জ্বর অনুভব করে। ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে তার বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ করে দেই। ২১ তারিখে তার জ্বর না কমায় নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষা করতে দেই স্বাস্থ্য বিভাগে। ওই দিনই তার করোনা পরিক্ষার ফলাফল পজিটিভ আসে। এরপর থেকে তাকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শষ্যা বিশিষ্ট জেলারেল হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয় । তাকে দুই দিন অক্সিজেন দেওয়ার পর এখন কিছুটা শারীরিক উন্নতি হয়েছে। আমাদের পরিবারে অপর কোন সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়নি।

বীণাপানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টির  প্রধান শিক্ষক পারভীন আক্তার বলেন, মোনালিসা ইসলাম সর্বশেষ  ১৪ সেপ্টেম্বর বিদ্যালয় ক্লাস করে। সেই দিন তার মধ্যে করোনার উপসর্গ জ্বর ও মাথা ব্যথা লক্ষ্য করা যায়। এরপর তার নমুনা পরিক্ষা করলে করোনা পজিটিভ আসে। আমরা সার্বক্ষণিক তার পরিবারে সাথে যোগাযোগ রাখছি।

প্রসঙ্গত, এর আগে গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া উপজেলার ৪ নং ফেরধারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর করোনা পজিটিভ আসে। তাকে নিজ বাড়িতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।