কুষ্টিয়া হাসপাতালের কেনাকাটায় দুর্নীতি, দুদকের মামলা

কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সাবেক তত্ত্বাবধায়ক আবু হাসানুজ্জামানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা সরঞ্জাম কেনায় সরকারি ক্রয়নীতি লঙ্ঘনসহ পরস্পর যোগসাজশে সরকারি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এই মামলা করা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে দুদকের কুষ্টিয়া সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে দুদকের প্রধান কার্যালয় ঢাকার উপসহকারী পরিচালক মো. সহিদুর রহমান এ মামলাটি করেন।

আবু হাসানুজ্জামানের (৬১) বাড়ি চুয়াডাঙ্গা শহরের হাসপাতাল রোড এলাকায়। মামলার অন্য দুই আসামি হলেন রাজধানীর মহাখালীতে অবস্থিত স্বাস্থ্য দপ্তরের সাবেক অ্যাসিস্ট্যান্ট রিপেয়ার অ্যান্ড ট্রেনিং ইঞ্জিনিয়ার এ এইচ এম আবদুস কুদ্দুস (৬১) ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স প্যারাগন এন্টারপ্রাইজের মালিক রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার ডাকরা গ্রামের বাসিন্দা জাহেদুল ইসলাম (৩২)। কুদ্দুসের বাড়ি ঢাকার আশুলিয়ার নিশ্চিতপুর এলাকায়।

মামলার এজাহারের সংক্ষিপ্ত বিবরণ অনুযায়ী জানা যায়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে পরিকল্পিতভাবে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে হাসপাতালে বাজারদরের চেয়ে অধিক দরে মেডিকেল যন্ত্রপাতি কিনে সরকারি ১ কোটি ১০ লাখ ৩৫ হাজার ৯৭০ টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন, যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

কুষ্টিয়ায় দুদকের আইনজীবী আল মুজাহিদ বলেন, আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য দুদককে নির্দেশ দিয়েছেন।