ফতুল্লায় ১৩ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ১৩ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. খলিলুর রহমান (২১) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (৯ অক্টোবর) কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় তার নানি বাদী হয়ে খলিলুর রহমানকে অভিযুক্ত করে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।
পরে বিকেলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার খলিলুর রহমান গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা থানার যোগিপাড়া গ্রামের আব্দুল করিমের পুত্র ও ফতুল্লা মডেল থানার মুসলিমনগর এতিমখানা রোডের সালাউদ্দিনের বাড়ির ভাড়াটিয়া।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (৮ অক্টোবর) দুপুরে ফতুল্লা মডেল থানার মুসলিম নগর এতিমখানার রোডের সালাউদ্দিনের ভাড়া বাসায়।  

মামলায় উল্লেখ্য করা হয় যে, বাদী তার স্বামী ও নাতনীকে নিয়ে ফতুল্লার মুসলিমনগর এতিমখানা রোডস্থ সালাউদ্দিনের বিল্ডিংয়ে ভাড়ায় বসবাস করেন। খলিলুর রহমানও একই বিল্ডিংয়ে পাশাপাশি ভাড়ায় থেকে একটি গার্মেন্টসে কাজ করে। পাশাপাশি বসবাস করার সুবাদে খলিলুর রহমানের সঙ্গে তাদের সুসম্পর্ক ছিল এবং নির্যাতিত কিশোরী তাকে দুলাভাই বলে সম্বোধন করতো।

ঘটনার দিন দুপুর দুইটার দিকে বাদীর স্বামী ভ্যানগাড়ি নিয়ে নিজ কর্মস্থলে ছিলেন এবং বাদী শাক তুলতে বাড়ির বাইরে ছিলেন। এ সুযোগে খলিলুর কিশোরীর মুখ চেপে তার রুমে জোরপূর্বক নিয়ে গিয়ে ছুরির ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান জানান, অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নির্যাতিত কিশোরীকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।