বাবা-মা-ভাইকে হত্যার অভিযোগ যুবকের বিরুদ্ধে

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলায় সম্পত্তি নিয়ে বিবাদের জেরে নিজ পরিবারের তিন সদস্যকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে ছাদেক হোসেন (৩০) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ছাদেককে আটক করেছে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ।


বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) ভোরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে।


মৃতরা হলেন- মো. মোস্তফা মিয়া (৭০), স্ত্রী জোসনা আক্তার (৫৫) ও মেজ ছেলে আহমদ হোসেন (২৫)।


নিহতের ছোট ছেলে আলতাফ বলেন, ভোরে বড় ভাই ছাদেক হোসেন আমাকে ফোন করে বলেন— বাড়িতে ডাকাত এসেছিল, তারা বাবা, মা ও মেজ ভাইকে জবাই করে হত্যা করেছে। তাদের হাসপাতালে নেওয়ার জন্য দ্রুত বাড়িতে আসতে বলেন বড় ভাই। খবর শুনে বাড়িতে এসে বাবা, মা আর মেজ ভাইয়ের মরদেহ ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখি।


তিনি আরও বলেন, ঘটনার সময় ঘরে বাবা, মা, বড় ভাই ও তার স্ত্রী আইনুর নাহার এবং মেজ ভাই আহম্মদ হোসেন ছিলেন। চাকরির কারণে বারইয়ারহাট মাছের আড়তে থাকতে হয় আমার। বাবা তার কিছু জমি মেজ ভাই আহম্মদকে দিয়েছিলেন। এ নিয়ে বড় ভাইয়ের সঙ্গে মেজ ভাইয়ের প্রায় ঝগড়া হতো। শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) মেজ ভাইয়ের বিয়ের জন্য অনুষ্ঠানের তালিকা তৈরির কথা ছিল।


জোরারগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জয়দ্রুত চাকমাজানান, ভোর ৫টার দিকে জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯ ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে দেখি তিন জনকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়াও নিহতদের পিঠ, বুক, গলায় একাধিক জখমের চিহ্ন পাওয়া গেছে।


তিনি আরও জানান, এটি হত্যাকাণ্ড বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় নিহতের বড় ছেলে ছাদেককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়েছে। এছাড়া তার স্ত্রী আইনুর নাহারকেও পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। ঘটনা তদন্তের জন্য চট্টগ্রাম থেকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) জানানো হয়েছে। তারা এলে সুরতহাল করা হবে। তবে এটি ডাকাতি না পরিকল্পিত খুন তা এখনো জানা যায়নি।