হজে গিয়ে সৌদিতে আরেক বাংলাদেশির মৃত্যু

হজে গিয়ে সৌদিতে আরেক বাংলাদেশির মৃত্যু

সৌদি আরবে হজ করতে গিয়ে আরও এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের হজ ব্যবস্থাপনাসংক্রান্ত পোর্টালে বৃহস্পতিবার রাতে এ তথ্য জানানো হয়।


এ নিয়ে এখন পর্যন্ত এবারের হজযাত্রায় আটজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। এদের মধ্যে পাঁচজন পুরুষ ও তিনজন নারী। মক্কায় মৃত্যু হয়েছে ছ জনের আর মদিনায় দুইজনের।


সর্বশেষ মারা যাওয়া মোসা. ফাতেমা বেগম রাজধানীর বাড্ডার বাসিন্দা ছিলেন। মক্কায় তার মৃত্যু হয় বৃহস্পতিবার রাতে। তার পাসপোর্ট নম্বর EE0382843।


এর আগে ২৮ জুন একজন, ২১ জুন দুজন, ১৭ জুন দুজন আর ১৬ ও ১১ জুন আরও দুই বাংলাদেশিসহ সাত হজযাত্রীর মৃত্যু হয়।


মারা যাওয়া বাকি সাতজন হলেন- টাঙ্গাইলের আব্দুল গফুর মিয়া, রংপুরের পীরগাছার মো. আবদুল জলিল খান, ঢাকার বিউটি বেগম, কুমিল্লার মোছা. রামুজা বেগম, জয়পুরহাটের মো. হেলাল উদ্দিন মোল্লা, নোয়াখালীর নুরুল আমিন ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের মো. জাহাঙ্গীর কবির।


মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ৩০ জুন পর্যন্ত সৌদি আরব পৌঁছেছেন ৪৮ হাজার ১৭১ হজযাত্রী। ৫ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে সৌদিতে পৌঁছানো ফ্লাইটের সংখ্যা ১৩৩টি। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ৭৫টি, সৌদি এয়ারলাইনসের ৫০টি এবং ফ্লাইনাস এয়ারলাইনসের ৮টি ফ্লাইট সৌদি আরবে পৌঁছেছে।


স্বাভাবিক সময়ে প্রতি বছর বিশ্বের ২০ থেকে ২৫ লাখ মুসল্লি পবিত্র হজ পালনের সুযোগ পেলেও করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে গত দুই বছর সৌদি আরবের বাইরের কেউ হজ করার সুযোগ পাননি।


পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় সৌদি সরকার এবার সারা বিশ্বের ১০ লাখ মানুষকে হজ পালনের অনুমতি দিয়েছে। বাংলাদেশ থেকে এ বছর সাড়ে ৫৭ হাজার মুসল্লি হজ পালনের সুযোগ পাচ্ছেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাবেন চার হাজার মুসল্লি।


সৌদি আরবে যাত্রার শেষ ফ্লাইট ৩ জুলাই। হজ শেষে ফিরতি ফ্লাইট শুরু হবে ১৪ জুলাই। ফিরতি ফ্লাইট শেষ হবে ৪ আগস্ট।