জেলে সালমানের সাথী ধর্ষক ধর্মগুরু!

salman khan
ad

বিনোদন ডেস্ক: কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় সালমান খানকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। কেউ বলছে তার পাঁচ বছরের সাজা হয়েছে আবার কেউ বলছে দুই বছরের। আবার শোনা যাচ্ছে এখনো সাজার রায় ঘোষণা হয়নি। এসব  গুঞ্জনের মধ্যেই তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে যোধপুর জেলে। সেখানেই রাত কাটিয়েছেন তিনি।

যোধপুর সেন্ট্রাল জেলে ‘ভাইজান’-এর পরিচয় এখন ‘কয়েদি নম্বর ১০৬’। জেলে সালমানের প্রতিবেশী ধর্ষণে অভিযুক্ত আর এক হাই প্রোফাইল বন্দি স্বঘোষিত ধর্মগুরু আসারাম বাপু।

এদিকে, জেলে সালমানকে বাড়তি নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছে। অন্যান্য কয়েদিদের থেকে খানিকটা আলাদাই রাখা হয়েছে। ডিআইজি কারা বিক্রম সিং জানিয়েছেন, ভাইজানকে ২ নম্বর ওয়ার্ডের যে সেলে রাখা হয়েছে, তার আকৃতি ১০ ফুট বাই ১০ ফুট।জেলেই তাঁকে রাতের খাবার দেওয়া হয়।

তিনি আরও জানান, কারারক্ষীদের কাছে একটি টুথব্রাশ, রাতের পোশাক ও পরিষ্কার অন্তর্বাসের আবেদন জানান। তারকাকে পৃথক শৌচাগার ব্যবহার করতে দেওয়া হয়েছে। পানের জন্য মিনারেল নয়, দেওয়া হয়েছে সাধারণ পানি।

এদিকে, সালমান খান যে জেলে আছেন সেখানের হাজতি কুখ্যাত ডন লরেন্স লরেন্স বিষ্ণোই। এ লরেন্স সালমানকে জেলের ভেতর থেকেই হত্যার হুমকি দিযেছিল। সালমানের সাথে এই জেলে আরও বন্দি আছেন বাঙালি শ্রমিককে পুড়িয়ে মারায় অভিযুক্ত শম্ভুলাল, খুনের দায়ে অভিযুক্ত প্রাক্তন কংগ্রেস বিধায়ক মালখান বিষ্ণোই।

ad