চিরনিদ্রায় শায়িত ইনামুল হক, বন্ধুর বিদায়ে কাঁদলেন আবুল হায়াত

নাট্যব্যক্তিত্ব ড. ইনামুল হকের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুর ২টা ২০ মিনিটে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তাকে চিরশায়িত করা হয়েছে।

এর আগে বেইলী রোড ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

নাট্যব্যক্তিত্ব ড. ইনামুল হকের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সংস্কৃতি অঙ্গনে। বর্ষীয়ান এই অভিনেতার মৃত্যুর খবরে ভেঙে পড়েছেন তার দীর্ঘদিনের বন্ধু কিংবদন্তি অভিনেতা আবুল হায়াত। বন্ধুর চলে যাওয়া কিছুতেই যেন মেনে নিতে পারছেন না তিনি।  

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ড. ইনামুল হককে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তার সহকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষরা। ফুল হাতে প্রিয় বন্ধুকে শেষ বিদায় জানাতে সেখানে হাজির হয়েছিলেন আবুল হায়াত।  

ড. ইনামুল হকের মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে নিয়ে আসার কিছুক্ষণ আগে শ্রদ্ধাঞ্জলি খাতাটি উল্টিয়ে দেখেন আবুল হায়াত। এরপর কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন এ অভিনেতা। চোখ গড়িয়ে জল আসতেই মুছে নেন তিনি। আর বলেন, ‘আমাদের বন্ধুত্ব ৫৫ বছরের। এই সংখ্যাটি এখন শুধুই শোকের। ’

ড. ইনামুল হককে শ্রদ্ধা জানানো জন্য তার মরদেহ নেওয়া হয়েছিল বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, কেন্দ্রীয় শাহীদ মিনার ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট)। সকাল ১১টায় রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ড. ইনামুল হকের মরদেহ নিয়ে এলে বিভিন্ন স্তরের সংগঠন ও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ ফুল দিয়ে তাকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।  

শ্রদ্ধা নিবেদনের এই আয়োজন করে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ইনামুল হকের দুই জামাতা অভিনেতা লিটু আনাম ও সাজু খাদেম এবং দুই মেয়ে হৃদি হক ও প্রৈতি হক।

ড. ইনামুল হককে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ, ঢাকা দক্ষিণের মেয়র ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডাক্তার জাফরুল্লাহ, অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি, তানজিকা, নাতাশা হায়াত, মোমেনা চৌধুরী, বৃন্দাবন দাস, মীর সাব্বির, নির্মাতা অরণ্য আনোয়ারসহ অনেকে।

একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য অভিনেতা-নাট্যকার ড. ইনামুল হক সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে বেইলী রোডের নিজ বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর বিকেল ৩টার দিকে রাজধানীর কাকরাইলের ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়। জানা যায়, হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা গেছেন।