আমিই রাস্তায় প্রথম লাইসেন্স চেকিং শুরু করি: কাদের

Jagoran- License Checking, Kader,
ad

জাগরণ ডেস্ক: নিরাপদ সড়কের দাবিতে পঞ্চম দিনের মতো আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের রাস্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যসহ গণহারে সবার লাইসেন্স চেক করা প্রসঙ্গে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এটা তো নতুন তারা দেখাচ্ছে এমন তো না। এটা দেখিয়েছি বাংলাদেশে আমি। আমিই প্রথম রাস্তায় গিয়ে এসব চেকিংগুলো শুরু করেছি।

বৃহস্পতিবার (২ আগস্ট) সচিবালয়ের নিজ কার্যালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি তো অলওয়েজ রাস্তায় ছিলাম। আমি অলওয়েজ একাজগুলো করেছি। আইন হলে ইমপ্লিন্টেশন করার লিগ্যাল বাইন্ডিং তো থাকে। যারা আইন মানতে চায় না তাদের মানতেই হবে। আইনটা দরকার, আইনটা হলে আমি বা যেই মন্ত্রী থাকুক ইমপ্লিন্টেশন করার শক্তি পাবে।

তিনি বলেন, সংসদের আগামী অধিবেশনে আইনটি পাস হলে রাস্তায় পাখির মতো মানুষ মারার যে প্রবণতা তা কমবে। এই আইনে কঠিন শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। শাস্তি কঠিন হলে সতর্কতা বাড়বে।

গণপরিবহন রাস্তায় না থাকা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, বিআরটিসির গাড়ি আমি চালু রেখেছি। বেসরকারি বাস মালিকদের বলা হয়েছিল বাস চালাতে। তারা বলছেন, গাড়ি ভেঙে ফেলবে, পুড়িয়ে দেবে- এই আতঙ্কে মালিকরা রাজি হচ্ছে না। তারপরও উই আর ট্রাইং টু পারস্যুয়েড (মত বদলানো) দেম। কারণ, আজতো ভয়ের মাত্রাটা ওইরকম না। কাজেই মানুষ সাফার করছে। সেজন্য গাড়ি যাতে রাস্তায় নামে- এ ব্যাপারে মালিক শ্রমিকদের রিকোয়েস্ট (অনুরোধ) করেছি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, শিক্ষার্থীরা যেন ট্রাফিক রুল মেনে চলে এজন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়েরও দায়িত্ব আছে। রাস্তার এপাশ থেকে ওপাশে মোবাইলে কথা বলতে বলতে পার হলে খেয়াল থাকে না গাড়ি চাপা দিয়ে যাচ্ছে। সব বিষয়ই প্রস্তাবিত আইনে রয়েছে। আশা করি জনস্বার্থে আগামী কেবিনেটে অ্যাপ্রুভ হয়ে সংসদে পাস হবে। সড়ক পরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে কার্যকর ভূমিকা পালন করবে।

ad