খুলনা সিটি নির্বাচন: কয়েক ঘণ্টা পর শেষ হচ্ছে প্রচারণা

Khulna City Election, Campaign,
ad

জাগরণ ডেস্ক: খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা শেষ হবে আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরেই। আজ রাত ১২টার পর থেকে সকল প্রকার প্রচারণা, মিটিং-মিছিল, জনসংযোগ বন্ধ হয়ে যাবে। শেষ মুহূর্তে ভোটারদের নিজের পক্ষে টানতে পাড়া-মহল্লা চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা।

মহানগরীর মোড়গুলো আরও আগে থেকেই পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে। অলিগলিতে চলছে মাইকিং। গানে, কবিতায় ও ছড়ার মাধ্যমে কৌশলে চলছে প্রচারণা। মহানগরীর এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত সবখানেই এখন প্রচারণা।

প্রচার-প্রচারণায় সরগরম খুলনা মহানগরী। ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ভোটারদের বাড়ি-বাড়ি চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থী ও তাদের অনুসারী রাজনৈতিক নেতা-কর্মীরা।

এই সময়ের প্রতিটি মুহূর্তেই কাজে লাগাতে চাচ্ছেন আওয়ামী লীগ-বিএনপির দুই প্রার্থীসহ ৫ মেয়র প্রার্থী। তবে প্রার্থী ৫ জন হলেও প্রচার-প্রচারণায় সবচেয়ে বেশি ব্যস্ত শীর্ষ দুই দলের প্রার্থী। সব ভোটারের কাছেই আরও একবার পৌঁছাতে চাচ্ছেন তারা। আর প্রচার প্রচারণার মধ্যেই চলছে একে অপরকে ঘায়েলের চেষ্টা।

শনিবার (১২ মে) সকালে নগরীর চানমারী বাজার এলাকা থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক।

পরে তিনি কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে লবনচোরা বাজার, শিপ ইয়ার্ড এলাকায় গণসংযোগ করেন। বিএনপি প্রার্থী সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে বিতর্কিত করতে চক্রান্ত করছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এর আগে নগরীর দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু। নির্বাচনে প্রশাসনের আচরণ প্রশ্নবিদ্ধ দাবি করে, সেনা মোতায়েন না করলে সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না বলে মন্তব্য করেন তিনি। পরে নগরীর মৌলভীপাড়া, টিবি বাউন্ডারী রোড ও দৌলতপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় প্রচারণা চালান।

ad