থানায় ঢুকে পুলিশকে পেটাল আ. লীগ নেতা!

Gouripur A-Lig Leader
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের গৌরীপুরে থানায় গিয়ে কর্তব্যরত এক সাব-ইন্সপেক্টরকে (এসআই) মারধর করার অভিযোগে রুকনুজ্জামান পল্লব নামের এক আওয়ামী লীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। আটক পল্লব উপজেলার সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

শনিবার (৯ জুন) সকালে গৌরিপুর থানায় এ ঘটনা ঘটে। পরে মারধরের শিকার পুলিশের এসআই হাসানুজ্জামান বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন।

গৌরীপুর থানার ওসি দেলোয়ার আহাম্মদ বলেন, শুক্রবার রাতে তিন মাদকসেবীকে আটক করে পুলিশ। আজ সকালে তাদের ছাড়াতে সুপারিশ করতে আসে সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রুকনুজ্জামান পল্লব। আসামী ছাড়ানো নিয়ে এসআই হাসানুজ্জামানের সাথে তার বাকবিতণ্ডা হয়।

তিনি বলেন, পরে এক পর্যায়ে পল্লব এসআইকে মারতে মারতে থানার ভেতর থেকে বাইরে নিয়ে আসে। পরে থানায় কর্তব্যরত অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে। এ সময় এসআইয়ের পোশাকের বোতাম ও নেমপ্লেট ছিড়ে যায়। পরে থানার অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা ওই নেতাকে আটক করে।

আটক আওয়ামী লীগ নেতার বড় ভাই মনিরুজ্জামান বিপ্লব ঘটনাটিকে সাজানো উল্লেখ করে বলেন, তার ভাই পুলিশকে মারধর করার মতো এমন কাজ করতে পারে না। ওই এসআই হচ্ছেন স্থানীয় পৌর মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামের ভাগ্নে। মেয়রের সাথে পল্লবের রাজনৈতিক বিরোধসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব রয়েছে। মেয়রের কথামতো সে ফাঁদ পেতে তাকে ফাঁসিয়েছে।

ad