বাংলাদেশ ব্যাংকে অগ্নিকাণ্ডে ৮০ লাখ টাকার ক্ষতি

Bangladesh Bank fire
ad

জাগরণ ডেস্ক: বাংলাদেশ ব্যাংকের ভবনে লাগা আগুনে ৮০ লাখ টাকার মতো ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে বাংলাদেশ ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ তদন্তে উঠে এসেছে।

বুধবার বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র শুভঙ্কর সাহা এ তথ্য জানান।

গত বৃহস্পতিবার রাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ১৪ তলায় আগুন লাগে। পরে ফায়ার সার্ভিস গিয়ে কিছুক্ষণের মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এরপরই এ ঘটনা তদন্তে দুইটি কমিটি গঠন করা হয়। এর মধ্যে একটি ছিল ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ তদন্ত কমিটি। আরেকটি ফায়ার সার্ভিসের গঠিত তদন্ত কমিটি।

শুভঙ্কর সাহা বলেন, অগ্নিকাণ্ডের ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক আহমাদ জামালের নেতৃত্বে একটি অভ্যন্তরীণ কমিটি গঠন করা হয়েছিল। এই কমিটি গতকাল মঙ্গলবার বিকালে তাদের তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। এই প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, এই অগ্নিকাণ্ডে প্রায় ৮০ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে। তবে প্রতিবেদনে এই মালামালের ক্রয়মূল্য ধরা হয়েছে।

শুভঙ্কর শাহা বলেন, অগ্নিকাণ্ডে দাপ্তরিক কোনো নথি ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি। তবে যেখানে আগুন লেগেছিল, সেখানে একটি ইলেকট্রিক কেটলি পড়েছিল। প্রতিবেদনের সুপারিশ তুলে ধরে তিনি বলেন, কোনো ভবনের ভেতরে এ ধরনের ইলেকট্রিক দ্রব্য রাখা ঠিক নয়। প্রতিটি বিভাগকে ওই বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা চলে গেলে ওই বিভাগের সার্কিট ব্রেকার বন্ধ করার ব্যবস্থা করতে হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র বলেন, ‘বর্তমানে যে ফায়ার প্রটেকশন আছে এটা পর্যালোচনা করে প্রয়োজন মনে করলে এর চাইতেও আধুনিক ফায়ার প্রটেকশন সিস্টেম স্থাপন করা দরকার। সেটি স্থাপন করা এবং একজন ফায়ার কন্ট্রোলার সেফটি অফিসার নিয়োগ করার সুপারিশ করা হয়েছে তদন্ত প্রতিবেদনে।’

মুখপাত্র বলেন, ইতোমধ্যেই প্রতিদিন বিভাগীয় কার্যক্রম শেষে কেন্দ্রীয়ভাবে আমাদের ভবনগুলোর বিদুৎ সঞ্চালন বন্ধ করার পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। তবে সিকিউরিটি লাইটগুলোতে বিদ্যুৎ থাকছে। আমরা আশা করি, আগামীতে এ ধরনের দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা আর ঘটবে না।

ad