বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ফয়সাল ও নাজিয়ার লাশ উত্তোলনের আদেশ

Faisal, Sajia, lift the body, order,
ad

জাগরণ ডেস্ক: নেপালে ইউএস-বাংলা উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে নিহত বৈশাখী টেলিভিশনের সাংবাদিক ফয়সাল আহমেদের লাশ নাজিয়া আফরিন চৌধুরীর লাশের সঙ্গে বদল হয়েছিল বলে নিহতদের পরিবারে পক্ষ থেকে আনা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাদের লাশ কবর থেকে তুলে নিজ নিজ পরিবারের কাছে হস্তান্তরের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (৪ এপ্রিল) ঢাকার মহানগর হাকিম শেখ হাফিজুর রহমান এ আদেশ দিয়েছেন। এর আগে মঙ্গলবার (৩ এপ্রিল) এ বিষয়ে নাজিয়া ও ফয়সালের পরিবারের ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে আবেদন করেন।

আদালতের আদেশে বলা হয়, আদালতে হলফনামা জমা দিয়ে বলা হয়েছে, ফয়সালের লাশ হিসেবে তার পরিবারকে যে লাশ দেওয়া হয় তা ফয়সালের নয়। ওই লাশ একই দুর্ঘটনায় আরেক নিহত নাজিয়া আফরিন চৌধুরীর লাশ। ফয়সালের লাশ বনানী কবরস্থান থেকে তুলে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করার জন্য ঢাকা জেলার নির্বাহী হাকিমকে বলা হলো।

বেঞ্চ সহকারী ফয়সাল আহমেদ বলেন, নিজ নিজ পরিবারের কাছে ফয়সাল ও নাজিয়ার লাশ হস্তান্তরের জন্য নিহত ফয়সালের ভাই সাইফুল ইসলাম ও নাজিয়ার ভাই আলী আহাদ চৌধুরী আদালতে আবেদন করেছিলেন। মঙ্গলবার এই আবেদন করা হলেও বুধবার আদেশ দিয়েছেন আদালত। এই আদেশ ঢাকা জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ১২ মার্চ দুপুরে নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের পূর্বেই বিধ্বস্ত হয় ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট। ৬৭ জন যাত্রীসহ ৭১ আরোহীর ওই ফ্লাইটটি বিধ্বস্ত হলে মোট ৪৯ জন নিহত হন। এর মধ্যে বাংলাদেশি ২৬ জন। এছাড়া আরও ১০ বাংলাদেশি আহত হন। বাংলাদেশ, ভারত ও সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের ২ জন মারা গেছেন।

নিহতদের মধ্যে ফয়সালকে বনানী কবরস্থানে এবং নাজিয়াকে শরিয়তপুরের ডামুড্যায় নিজ গ্রামে দাফন করা হয়। তবে নেপাল থেকে তাদের মরদেহ দেশে আনার পর পরিবারের কাছে হস্তান্তরের সময় লাশ অদল-বদল হয়ে গিয়েছিল।

ad