সাকিব ঝলকে শীর্ষ দুইয়ে ঢাকা

Shakib, supprise, Dhaka,
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে রংপুর রাইডার্সকে ৪৩ রানে হারিয়ে পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থেকে গ্রুপ পর্ব শেষ করল ঢাকা ডাইনামাইটস।

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ঢাকা ৭ উইকেটে ১৩৭ রান সংগ্রহ করে। জবাবে ৭ উইকেটে মাত্র ৯৪ রানেই শেষ হয় রংপুরের ইনিংস।

সাকিব আজকে নিজের ক্যারিয়ারের ২৫০তম টি-২০ ম্যাচ খেলতে নেমে ব্যাট হাতে ৩৩ বলে ২ চার এবং ২ ছক্কার মারে ৪৭ রানে অপরাজিত ইনিংস খেলার পর বল হাতে ৪ ওভারে মাত্র ১৩ রান দিয়ে ২ উইকেট তুলে নেন।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা খুব একটা ভালো হয়নি ঢাকা ডায়নামাইটসের। দলীয় মাত্র ৫ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারিয়ে বসে তারা। সে ধারাবাহিকতা ছিল পুরো ইনিংসেই। রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে তাদের সংগ্রহটাও তাই খুব একটা বড় হয়নি।

ঢাকার ৪৮ রানে ৫ উইকেট পতনের পর সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন সাকিব আল হাসান। ব্যাটসম্যান সাকিবের দেখা মিলল দলের সংকটময় অবস্থায়। সাতে নামা সাকিবের ৩৩ বলে অপরাজিত ৪৭ রানের ইনিংসে রংপুর রাইডার্সকে ১৩৮ রানের লক্ষ্য দিতে পারে ঢাকা।

মারুফও বেশ কিছুক্ষণ সঙ্গ দিয়েছেন সাকিবকে। ১৩ ওভার শেষে মাত্র ৬১ রান তোলা ঢাকা তাই লড়াই করার পুঁজি পেয়েছে। শেষ ৭ ওভারে তুলেছে ৭৬ রান।

কুঁচকির ইনজুরিতে পড়া মাশরাফির অনুপস্থিতে রংপুরের বোলিং লাইন ছিল দুর্দান্ত। রুবেল হোসেন ও এবাদত হোসেন দুটি করে উইকেট নেন। আর একটি করে উইকেট পান আবদুর রাজ্জাক ও নাহিদুল ইসলাম।

ঢাকার এই ইনিংসে সর্বোচ্চ সংগ্রহ অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের। বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাত নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ৩৩ বলে ৪৭ রানের একটি ইনিংস খেলে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মেহেদী মারুফের, ২৩ বলে ৩৩ রান করেন। আর অন্যরা ছিলেন আসা-যাওয়ায় ব্যস্ত।

১৩৮ রানের সহজ লক্ষ্যটাকে রংপুরের জন্য দূরুহ করে তোলেন সাকিব আল হাসান, সুনিল নারাইন ও মোহাম্মদ আমির। ১২ ওভারে এই তিন বোলার দেন মাত্র ৪৬ রান। সেই সঙ্গে তুলে নেন পাঁচটি উইকেট।

ঢাকার বোলারদের দাপটে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানো রংপুর তুলেছে ২০ ওভারে মাত্র ৯৪ রান। সবোর্চ্চ ২৮ রান করেন রবি বোপারা। অন্যদের মধ্যে ২৬ রান করেন জনসন চার্লস। বাকিদের মধ্যে দুই অংক পেরোতে পারেন কেবল নাহিদুল (১৩)।

ঢাকার পক্ষে সাকিবের ২ উইকেট লাভের পাশাপাশি আবু হায়দার রনি ২টি এবং মোসাদ্দেক, নারিন ও আমির একটি করে উইকেট নেন।

ad