২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট পেশ বৃহস্পতিবার

২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের বাজেট পেশ বৃহস্পতিবার
ad

জাগরণ ডেস্ক: জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট পেশ করবেন ২ জুন বিকেল ৩টায়। এটি অর্থ মন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের ১০ম বাজেট, বর্তমান সরকারের ১৭তম বাজেট এবং দেশের ৪৫ তম বাজেট।

প্রায় সমাপ্ত হতে যাওয়া অর্থবছরে সরকার কোনরকম রাজনৈতিক বৈরী পরিস্থিতির মুখে পড়েনি। এই অর্থবছরে দেশে বৈদেশিক মুদ্রা সঞ্চয়ন বেড়েছে, লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশী জিডিপি অর্জন এবং সহনীয় মুদ্রাস্ফীতির হার দেশের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করেছে।

আগামী বাজেটে ৭ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার অংশ হিসাবে ২০১৯-২০২০ সালের মধ্যে জিডিপি প্রবৃদ্ধি পর্যায়ক্রমে ৮ শতাংশে উন্নীত করার জন্য ব্যবস্থা থাকবে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরে অধিক জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনের জন্য একটা একটি রোড ম্যাপ উপস্থাপন করবেন।

অর্থমন্ত্রীর প্রদত্ত আভাস অনুযায়ী আগামী বাজেটের আকার হবে ৩ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকা। আগামী বাজেটে ভিশন ২০২১ এর লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য অন্যান্য বিশেষ দিকও অন্তর্ভুক্ত থাকবে। এই বাজেটে উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ বর্ধিত করা সহ কিছু মেগা প্রকল্পের জন্য অর্থায়নের বিধানও অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

আসন্ন বাজেটে সরকারের অধিক আভ্যন্তরীণ রাজস্ব সংগ্রহ করার লক্ষ্য নিয়ে দেশের বর্তমান রাজস্ব ব্যবস্থার সংস্কারেরও প্রস্তাব থাকবে। আগামী বাজেটে ৫ শতাংশের বেশী যাতে বাজেট ঘাটতি না হয় সে লক্ষ্যে নতুন মূল্য সংযোজন আইন ও কাস্টমস আইন চালু এবং রাজস্ব বোর্ডের প্রধান প্রধান কর্মকাণ্ড অটোমেশনেরও প্রস্তাব থাকবে।

নতুন সংস্কারকৃত আইনে সম্ভাব্য করদাতাদের করের আওতায় এনে রাজস্ব পরিধি বাড়ানোর কৌশল থাকবে আসন্ন বাজেটে। বর্তমানে ১৭ লাখ টিআইএনধারীর মধ্যে ১২ লাখ আয়কর বিবরণী পেশ করেন। এই করদাতাদের সংখ্যা আগামী ৪ বছরের মধ্যে ৩০ লাখে উন্নতি করার পরিকল্পনাও রয়েছে। গত বছরগুলোর ন্যায় আসন্ন বাজেট উপস্থাপন করা হবে পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে এবং এর কপি অর্থ বিভাগের ওয়েব সাইটে পাওয়া যাবে।

ad