টাইব্রেকারে রাশিয়াকে হারিয়ে সেমিফাইনালে ক্রোয়েশিয়া

croesia in semi
ad

স্পোর্টস ডেস্ক: বিশ্বকাপ ফুটবলের শেষ কোয়ার্টার ফাইনালে স্বাগতিক রাশিয়াকে টাইব্রেকারের ৪-৩ গোলে হারিয়ে চরম নাটকীয় ম্যাচে ২০ বছর পর আবারও সেমিফাইনালে উঠেছে ক্রোয়েশিয়া।

শনিবার (৭ জুলাই) বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাতে সোচিতে অনুষ্ঠিত ম্যাচের নির্ধারিত সময়ে ১-১ এবং অতিরিক্ত সময়ের খেলা ২-২ গোলে অমীমাংসিত থাকলে খেলাটি টাইব্রেকারে গড়ায়।

টাইব্রেকারে আগে কিক নেয়া রাশিয়ার ফেডর স্মোলোভের কিক ঠেকিয়ে দেন সুবাসিচ। পরের কিকে মার্সেলো ব্রোজোভিচ গোল করে ক্রোয়েশিয়াকে এগিয়ে দেন।

দ্বিতীয় কিকে কিকে অ্যালান ডিজাগোএভ গোল করলেও এবং মাতেও কোভাসিসের কিক ঠেকিয়ে দেন রুশ গোলকিপার। তাতে ব্যবধান দাঁড়ায় ১-১।

তৃতীয় কিকে মারিও ফার্নান্ডেজের কিক পোস্টের বামপাশে গড়িয়ে গেলে তিনি গোল মিস করেন। আর লুকা মড্রিচের কিক পোস্টের বল বারে লেগে তা ভেতরে জালে প্রবেশ করলে ক্রোয়েশিয়া ২-১ গোলে এগিয়ে যায়।

চতুর্থ কিকে সার্গেই এবং ভিদা গোল করেন। পঞ্চম কিকে রাশিয়ার হয়ে ডালের গোল করলেও শেষ কিকে ইভাম রাকিটিচের গোলের সাথে সাথে রাশিয়াকে কাঁদিয়ে ১৯৯৮ সালের পর আবারও সেমিফাইনালে চলে যায় ক্রোয়েশিয়া।

এর আগে নির্ধারিত সময়ের প্রথমার্ধে ডেনিশ চেরিশেভের অসামান্য দক্ষতায় করা চোখ ধাঁধানো গোলের পর আন্ড্রেজ কারমারিকের হেডে করা দারুণ গোলে জমে ওঠে ম্যাচটি।

ম্যাচের ৩১ মিনিটে আর্টেম ডিজুবার পাস থেকে বল পেয়ে ২৫ গজ দূর থেকে দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে কিক নিয়ে গোলকিপারকে বোকা বানিয়ে বল জালে পাঠিয়ে রাশিয়াকে এগিয়ে দেন চেরিশেভ।

৩৯ মিনিটের মাথায় বামপ্রান্ত থেকে আক্রমণ করে মারিও মান্ডজুকিচ কাট ব্যাক পাস করে বল দেন আন্ড্রেজ কারমারিকের উদ্দেশ্যে। তিনি বলটি দারুণভাবে হেড করে বল জালে জড়িয়ে দিয়ে ক্রোয়েশিয়াকে সমতায় আনেন।

দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য কোনো দলই গোল করতে পারেনি। ফলে খেলাটি অতিরিক্ত সময়ে গড়ায়।

ম্যাচের অতিতিক্ত সময়ের ১০ মিনিটের সময় কুটেপভের নেয়া কর্নার কিক থেকে বল মাথায় লাগিয়ে তা রাশিয়ার জালে জড়ান ডমাগজ ভিদা।

অতিরিক্ত সময়ের ২৫ মিনিটের মাথায় ক্রোয়েশিয়ার ডি বক্সের কাছে পিভারিকের হাতে বল লাগায় ফ্রি কিক পায় রাশিয়া। পরে অ্যালান ডিজাগোএভের হেডে করা গোলে ম্যাচে ফিরে আসে রাশিয়া। তাতে ম্যাচটি টাইব্রেকারে গড়ায় এবং সেখানে শেষ হাঁসি হেসেছে ক্রোয়েশিয়া।

ad