সুনামগঞ্জে বজ্রপাতে নিহত ৫

thunderstorm,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের পৃথক বজ্রপাতে এক শিশুসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (৮ মে) ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত এসব বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- তাহিরপুরের সদর ইউনিয়নের ভাটিতাহিরপুর গ্রামের মুক্তুল হোসেনের ছেলে নূর হোসেন (২২),বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার দক্ষিণ বাদাঘাট ইউনিয়নের পুরানগাঁও এলাকার মৃত হযরত আলীর স্ত্রী শাহান বানু (৩৫), একই উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের শিদ্ধরপুর গ্রামের সুরমা বেগম (২২), দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাঁও ইউনিয়নের ডুমবন্ধ গ্রামের আসাদ আলীর ছেলে ফেরদৌস আহমেদ (১২) ও দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের টংঘর গ্রামের মৃত ফজর মোহাম্মদের ছেলে মো. মোছলিম উদ্দিন (৭৫)।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার দক্ষিণ বাদাঘাট ইউনিয়নের পুরানগাঁও গ্রামের শাহানা বানু মঙ্গলবার সকালে বাড়ির পাশে ধান শুকাচ্ছিলেন। এ সময় বজ্রপাত হলে তার মৃত্যু হয়।

তাহিরপুর উপজেলার ভাটি তাহিরপুর গ্রামে হাওরে ধান কাটার সময় নূর হোসেন নামের এক কৃষক নিহত হন।

দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাঁও ইউনিয়নের ডুম্ভনগাঁও গ্রামের মখলিস আলীর ছেলে ফেরদৌস আলম নামের এক শিশু সকালে মাছ ধরার সময় বজ্রপাতের আঘাতে মারা যায়।

সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হাবিব উল্লাহ জানান, ভোররাতে বাড়ির পাশে ধানের খলায় (ধান শুকানোর জায়গা) ঘুমিয়ে ছিলেন দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের টংঘর গ্রামের মো. মোছলিম উদ্দিন (৭৫)। ঝড়-বৃষ্টির সময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে সকালে গিয়ে ধানের খলা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

এছাড়া মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের শিদ্ধরপুর গ্রামের সুরমা বেগম (২২) বাড়ির আঙিনায় কাজ করছিলেন। এ সময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

ad