দুই জঙ্গির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন, অধিকাংশ হাড় মেলেনি

Two militants, post-mortem
ad

জাগরণ ডেস্ক: সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় শিববাড়ি এলাকার আতিয়া মহলে সেনাবাহিনীর প্যারা কামান্ডো দলের অভিযানে নিহত দুই জঙ্গির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। নিহত দুই জঙ্গির শরীরের অধিকাংশ হাড় মেলেনি। লাশ দুটির শরীরের পুরা অংশই পোড়া ছিল। আর শরীরের মধ্যে ইট-সুরকি মাখানো ছিল। 

মঙ্গলবার (২৮ মার্চ) এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে ডা. শামসুল আলমের নেতৃত্বে এ ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়।

ওই দু’টি লাশ কাওসার আহমদ ও মর্জিনা বেগমের হতে পারে বলে পুলিশ ধারণা করছে। তবে তাদের পরিচয় নিশ্চিত করতে আঙুলের ছাপ ও ডিএনএ’র নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এগুলো পরীক্ষা করার পর বিস্তারিত জানা যাবে।

পুলিশ ধারণা করছে দুইজনের শরীরের মধ্যে আত্মঘাতি সুইসাইডল ভেস্ট বিস্ফোরণ হওয়াতেই তাদের শরীর পুড়ে গেছে।

কোতোয়ালি থানার ওসি সোহেল আহমদ বলেন, লাশ দুটি চেনার উপায় নাই। অজ্ঞাতপরিচয় হিসেবেই তাদের ময়নাতদন্ত হয়েছে। এখন লাশ দুটি রাখা হবে হিমাগারে। পরিচয় নিশ্চিতের জন্য ডিএনএ নমুনা ও আঙুলের ছাপ রাখা হয়েছে।

তিনি জানান, লাশগুলা কিছুদিন সংরক্ষণ করবেন তারা। এর মধ্যে স্বজনরা কেউ এলে পরীক্ষা করে পরিচয় শনাক্ত করা হবে। আর তা না হলে একটি নির্দিষ্ট সময়ের পর অজ্ঞাতপরিচয় হিসেবে সেগুলো সৎকার করা হবে।

এদিকে, দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ি এলাকায় আতিয়া মহলে থাকা অবশিষ্ট দুই জঙ্গির লাশের অপেক্ষায় আছে পুলিশ। সেনাবাহিনীর প্যারা-কমান্ডোরা লাশগুলো উদ্ধার করেছে বলে জানা গেলেও সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (গণমাধ্যম) জেদান আল মুসা বলেন, আমরা এখন লাশগুলোর অপেক্ষায় আছি।

ad