‘মাইল্ড স্ট্রোক’ করেছেন খালেদা জিয়া, দাবি চিকিৎসকদের

'Mild Stroke', Khaleda Zia, claims, doctors,
ad

জাগরণ ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মাইল্ড স্ট্রোক করেছিলেন বলে দাবি করেছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ঢাকা মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক এফ এম সিদ্দিকী।

শনিবার (৯ জুন) বিকালে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে যান তার ব্যক্তিগত চার চিকিৎসক। দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় পর বেরিয়ে অধ্যাপক এফ এম সিদ্দিকী তাদের পর্যবেক্ষণ সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন।

অধ্যাপক এফ এম সিদ্দিকী বলেছেন, গত মঙ্গলবার খালেদা জিয়া হঠাৎ পড়ে গিয়েছিলেন। তিনি ওই সময়টার কথা বলতে পারছেন না। তার একটি ‘মাইল্ড স্ট্রোক’ হয়েছে বলে আমরা ধারণা করছি। তিনি ওই সময়টার কথা বলতে পারছেন না। উনার কথায় কিছুটা জড়তা আছে, তবে কমিউনিকেশন করতে পারছেন।

তিনি বলেন, আমরা কারা কর্তৃপক্ষের কাছে ৪ পৃষ্ঠার একটি মেডিকেল রিপোর্ট দিয়েছি। খালেদা জিয়ার অনেকগুলো মেডিকেল টেস্ট করা দরকার, যেগুলো কারাগার কর্তৃপক্ষের নির্ধারিত হাসপাতালে নেই। এজন্য আমরা তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে নিয়ে টেস্ট করার জন্য অনুরোধ করেছি।

তিনি আরও বলেন, একইসঙ্গে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তির মাধ্যমে চিকিৎসা দেয়ার জন্যও দাবি জানিয়েছি। হাসপাতালে না নেয়া হলে তার বড় ধরনের স্ট্রোক হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

অধ্যাপক এফ এম সিদ্দিকী আরও বলেন, উনি এখন মাঝে মাঝে ব্যালেন্স রাখতে পারেন না। উনি হাঁটলে একবার এদিকে, আরেকবার ওদিকে মনে হচ্ছে যে উনি পড়ে যান। পড়ে যাওয়ার একটা সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে।

এদিকে, খালেদা জিয়ার ‘মাইল্ড স্ট্রোক-এর’ বিষয়টি কারা কর্তৃপক্ষ অবগত নয় বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জমান খান কামাল।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ে পড়ে গিয়ে মাইল্ড স্ট্রোক করেছেন এই কথাগুলো তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা বলেছেন, কিন্তু এ বিষয়ে কারা কর্তৃপক্ষ অবগত নয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য যেসব পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা দরকার, তার সবই করা হবে। পরীক্ষার রিপোর্ট আসার পর তার চিকিৎসা কোথায় হবে, সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তবে, আমরা মনে করি তার চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (পিজি) ভালো।

ad