মিয়ানমারের ওপর চাপ বাড়াতে হবে: গুতেরেস

Rohingya, Myanmar, Gutters,
ad

জাগরণ ডেস্ক: জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধানে মিয়ানমারের ওপর আরও চাপ বাড়াতে হবে।

রবিবার (১ জুলাই) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন জাতিসংঘ মহাসচিব ও বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট। এ সময় আন্তোনিও গুতেরেস এ কথা বলেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম।

অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, আমরা মিয়ানমারের ওপর চাপ অব্যাহত রেখেছি। রোহিঙ্গা ইস্যুতে কি করা উচিৎ, সেটা যাতে মিয়ানমার বুঝতে পারে সেজন্য তাদের ওপর আমাদের চাপ বাড়াতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ মহাসচিব এবং বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্টকে বাংলাদেশ স্বাগত জানিয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরেন। তিনি দীর্ঘকাল ধরে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশে চলে আসতে থাকার বিষয়েও তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

ইহসানুল করিম বলেন, মিয়ানমারের আরাকান থেকে ১৯৭৭ সালে প্রথম রোহিঙ্গাদের পালিয়ে বাংলাদেশে আসার কথা এবং পরে ১৯৮২ ও ১৯৯১ সালের বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশে তাদের প্রবেশের কথা বৈঠকে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার সরকার যে চুক্তি করেছে, তা বাস্তবায়নে তারা কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে মনে হচ্ছে না। টেকনাফে এই বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেয়ায় স্থানীয় জনগণেরও অসুবিধা হচ্ছে। উন্নত বাসস্থান সুবিধা দিতে প্রায় এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে স্থানান্তরের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ মহাসচিব এবং বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্টকে বাংলাদেশ স্বাগত জানিয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরেন। তিনি দীর্ঘকাল ধরে মিয়ানমারের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশে চলে আসতে থাকার বিষয়েও তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাদের এই বৈঠক সম্পর্কে জাতিসংঘ মুখপাত্রের অফিসিয়াল টুইটার পোস্টে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস এবং বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রতি উদারতা দেখানোর জন্য বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তারা বলেছেন, রোহিঙ্গা সংকটে দায়িত্ব কেবল বাংলাদেশের নয়, বরং পুরো বিশ্বের।

ad