ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে যোগ ব্যায়াম

ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে যোগব্যায়াম
ad

জাগরণ ডেস্ক: একটু বয়স বাড়লেই আমরা ডায়বেটিস নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়ি। ডায়বেটিস কি সেটা জানা জরুরী। ডায়বেটিস হলো রক্তের উচ্চ গ্লুকোজ জনিত স্বাস্থ্য সমস্যা।

ডায়বেটিস সাধারণত দুই রকমের হয়। এর মধ্যে টাইপ ১ ডায়বেটিস খুব দ্রুত উপসর্গ দেখায় এবং খুব দ্রুত নিয়ন্ত্রণ করা যায়, এবং টাইপ ২ ডায়বেটিস খুব ধীরে ধীরে শরীরে বাসা বাঁধে এবং একে নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হয়ে পড়ে।

যাদের বাসায় একজন ডায়বেটিস রুগী থাকে তাদের বাসায় রক্তে অতিরিক্ত চিনি নিয়ে দু’বেলা মুঠো মুঠো ওষুধ খাওয়া এবং ইনসুলিন দেওয়া এখন একটা পরিচিত ছবি। ডায়বেটিসের জন্য নিয়ন্ত্রিত জীবন যাপন করাও খুব দুঃসাধ্য হয়ে পড়ছে। কিন্তু আপনি কি জানেন প্রতি দিনের একটু শরীরচর্যায় আপনি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন এই মরণ ব্যাধি ডায়বেটিসকে।

আসুন জেনে নেই কোন কোন যোগ আসন আপনার ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে-

১. হলাসন: এই আসন থাইরয়েড, প্যারাথাইরয়েড, ফুসফুসের কার্যকারিতাকে সচল রেখে আপনার ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখবে।

২. সর্বাঙ্গাসন: এই আসন আপনার থাইরয়েড গ্ল্যান্ডের কাজকে নিয়ন্ত্রণ করে। আপনার পাচনতন্ত্র, স্নায়ুতন্ত্র এবং জননতন্ত্রকে সুস্থ এবং কর্মক্ষম রাখার জন্য এই আসন বেশ কার্যকরী।

৩. পশ্চিমত্তাসন: এই আসন আপনার দেহের উপরের অংশে রক্ত সরবরাহ বাড়িয়ে দিবে। পিঠের ব্যথার যদি ভুগে থাকেন তবে কার্যকর ফল পাবেন এই আসনের মাধ্যমে।

৪. ধনুরাসন: কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাতে ধনুরাসন খুবই কার্যকর। এছাড়াও ধনুরাসন পিঠ এবং শিড়দাঁড়ার ব্যথা উপশম সাহায্য করে।

৫. বজ্রাসন: মানসিক অশান্তি রোধ করার পাশাপাশি পেটের গোলমাল অবসানে এই আসন কার্যকরী।

৬. বালাসন: পিঠের ব্যথা এবং স্ট্রেস কমাতে ভাল ফলাফল পাওয়া যাবে এই আসনে।

৭. সেতুবন্ধাসন: মনকে হাল্কা করা এবং হজমের গোলমাল থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সেতুবন্ধাসন খুবই কার্যকর। সেতুবন্ধাসন আপনার রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণ করবে।

৮. প্রাণায়াম: রক্তে অক্সিজেনের পরিমাণ বাড়াতে প্রাণায়াম খুব কার্যকর একটা আসন। প্রাণায়ামে শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক হয় এবং মানসিক স্থিরতা বাড়ায়।

ad