আমি শারীরিকভাবে অক্ষম: ধর্ষক বিজেপি নেতা কুলদীপ

Kuldeep
ad

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের উন্নাওয়েতে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সিংহ নিজেকে শারীরিকভাবে অক্ষম বলে দাবি করেছেন। এ জন্য তার পোটেন্সি টেস্ট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিবিআই।

কুলদীপ সিংহ জিজ্ঞাসাবাদে জানান, তিনি শারীরিকভাবে অসমর্থ। তার সেক্স্যুয়াল সমস্যা রয়েছে। ফলে তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ মিথ্যা।

সিবিআই জানায়, কুলদীপ জিজ্ঞাসাবাদে নিজেকে শারীরিকভাবে অসমর্থ দাবি করেছেন। এখন যদি তাকে আদালতে তোলা হয় তাহলে তিনি একই দাবি করবেন। এতে মামলা আরও দীর্ঘ হবে। তাই আগেভাগেই তারা কুলদীপের পোটেন্সি টেস্ট করাতে চান। এই পোটেন্সি টেস্টের মাধ্যমে বোঝা যায় কোনো ব্যক্তি ধর্ষণে সক্ষম কিনা। কিছু কিছু ক্ষেত্রে অভিযুক্ত ধর্ষকের এই পরীক্ষা হয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে বেশকিছু ধর্ষণ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। ওই আলোচিত ধর্ষণগুলোর মধ্যে অন্যতম উন্নাওয়ের এক কিশোরীকে গণধর্ষণ। এ ধর্ষণে অভিযুক্ত হন বিজেটি বিধায়ক কুলদীপ সিংহ ও তার ভাই। শুধু ধর্ষণই নয় মামলা করতে চাওয়ায় ভিকটিমের বাবাকেও থানার ভেতর কুলদীপের ভাই ও সহযোগিরা পিটিয়ে হত্যা করে বলে অভিযোগ।

এ ঘটনা দীর্ঘদিন ধরে ওই কিশোরী ও তার পরিবার বিচার চাইলেও প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। পরে এ মাসের শুরুর দিকে ভিকটিমসহ তার পুরো পরিবার মূখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বাড়ির সামনে গিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এরপরই শুরু হয় ভারতজুড়ে তোলপাড়। এক পর্যায়ে চাপের মুখে কুলদীপ ও তার ভাইকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ad