ইসরায়েলের গুলিতে নিহত আরও ৪ ফিলিস্তিনি

Ghaza
ad

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বাহিনীর গুলি ও টিয়ারশেলে আরও চার ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে সাংবাদিকসহ ছয় শতাধিক মানুষ।

শুক্রবার (৮ জুন) বিকালে চলমান বিক্ষোভের জেরে গাজা সীমান্তে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে ফিলিস্তিনিরা। এ সময় টিয়ারশেল নিক্ষেপ ও গুলি চালায় ইসরায়েলি বাহিনী।

দুই মাস ধরে চলমান বিক্ষোভে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে এ নিয়ে নিহতের সংখ্যা দাঁড়াল ১৩০ জনে। এসব ঘটনায় আহত হয়ে সাড়ে তিন হাজার ফিলিস্তিনি।

জানা যায়, শুক্রবার গাজা সীমান্তসহ অন্তত পাঁচটি স্থানে জড়ো হয়ে প্রায় ১০ হাজার মানুষ শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদে অংশ নেয়। এ সময় তাদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ শুরু করে ইসরায়েলি সেনারা। পরে অবস্থা Injuredবেগতিক দেখে তারা সরাসরি গুলি চালায়।  এতে চারজন নিহত ও অন্তত ৬০০ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে এএফপির একজন ফটো সাংবাদিকও আছেন।

চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, আহতদের মধ্যে শতাধিক মানুষ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। তাদের অনেকের অবস্থাই আশঙ্কাজনক।

ইসরায়েলি সেনাদের ছোড়া টিয়ার গ্যাসের একটি শেল হাতেম আবু সাবলা নামে এক বিক্ষোভকারীর নাকের পাশ দিয়ে চামড়া ভেদ করে গালের ভেতর ঢুকে যায়।বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক আলোকচিত্রী আবু সাবলার ঠিক ওই মুহূর্তের ছবি তুলতে সক্ষম হন। বর্তমানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ফিলিস্তিনিদের জন্য জাতীয় বিপর্যয় হিসেবে চিহ্ণিত ছয়দিনের যুদ্ধের ৫১তম বার্ষিকী উপলক্ষে এই মিছিলের আয়োজন করা হয়।

মৃত্যু প্রসঙ্গে ইসরায়েল কর্তৃপক্ষ বলছে, এর সবই তারা করছে নিজেদের সীমান্ত রক্ষায় এবং আন্তর্জাতিক নিয়ম মেনেই করা হচ্ছে।

ad