জাপানে বন্যা ও ভূমিধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩০

Japan, floods landslides, dead, 130,
ad

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জাপানে প্রবল বৃষ্টিপাতের পর সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩০ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে ১৩ জন মারা গেছেন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে।

মঙ্গলবার (১০ জুলাই) দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন। ফলে জাপানে তিন দশকের মধ্যে বৃষ্টিপাতের কারণে এবারই সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হলো।

গতকাল থেকে উদ্ধার অভিযান জোরদার করা হয়েছে। তবে বৃষ্টিপাতের সতর্কতা প্রত্যাহার করা হয়েছে। ২০ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে। বন্যা কবলিত এলাকার অনেক মানুষ বাসার ছাদে ও উঁচু স্থানে ঠাঁই নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে সকল বৈদেশিক সফর বাতিল করেছেন বন্যার্তদের পাশে থাকার জন্য।

উদ্ধারকর্মীরা কাঁদা মাড়িয়ে এবং আবর্জনার স্তূপ পরিষ্কার করার কাজ করছেন জীবিতদের উদ্ধারের জন্য। রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম এনএইচকে জানিয়েছে, এখনো ৫৯ জন নিখোঁজ রয়েছেন। বন্যা কবলিত এলাকা থেকে মানুষজনকে উদ্ধারে পুলিশ, সেনা সদস্যসহ ১০ হাজার উদ্ধারকারী কাজ করে যাচ্ছেন।

এই বন্যা ও ভূমিধসের ক্ষয়ক্ষতি ও নিখোঁজদের খোঁজে ৭০ হাজার মানুষ কাজ করছে। প্রায় ১২ হাজার মানুষ বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে বসবাস করছে। কয়েক হাজার ঘর-বাড়ি ধ্বংস হয়েছে এবং ১৭ হাজার বাড়ি বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় আছে।

জাপানের কর্মকর্তারা জানান, হিরোশিমা, সাগা, ফুকুওকা, ইয়ামাগুচি, ওকায়েমা, হিয়োগো, কিয়োতো, এহিম, কোচি, শিগা এবং গিফু এলাকায় প্রচুর বৃষ্টিপাতে বন্যা দেখা দেয়। কোনো এলাকায় ভূমিধ্বসের সৃষ্টি হয়।

হিরোশিমার মিহারা শহরের বাসিন্দা ইউমেকো মাতসুই বলেন, আমাদের টয়লেট নষ্ট হয়ে গেছে। খাবার ফুরিয়ে যাচ্ছে। গত শনিবার থেকে খাবার পানি পাওয়া যাচ্ছে না।

আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আবহাওয়া পরিস্থিতি ভালো হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এর ফলে উদ্ধার তৎপরতায় গতি আসবে।

ad