মুখোমুখি অবস্থানে ভারত-চীনের সেনা, সংঘাতের শঙ্কা

ladakh india army
ad

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ফের উত্তেজনা বেড়েছে ভারত-চীন সীমান্তে। লাদাখ সীমান্তে দুই দেশের সেনাবাহিনী মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে। এতে যে কোনো সময় সংঘাত বেধে যেতে পারে বলে আশঙ্কা নিরাপত্তা বিশ্লেষকদের।

জানা যায়, পূর্ব লাদাখের ডেমচোক এলাকায় রাখালের বেশে ভারতের অভ্যন্তরে ঢুকে ঘাঁটি গেড়েছে চিনা সৈন্য। মোট পাঁচটি তাঁবু ফেলেছে তারা। ঘটনাটি জানার পর ভারতীয় সেনাবাহিনীর কয়েকটি দল ওই এলাকায় অবস্থান নেয়। তারা এখন চীন সেনাদের মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে।

এতে ওই এলাকায় ভীতিকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ভারত তাদের বেসামরিক নাগরিকদের ওই এলাকা থেকে সরিয়ে নিয়েছে। বন্ধ রয়েছে মাঠে পশু চরানো। এ ঘটনার পর দ্রুত সমস্যা সমাধানে বিক্ষোভ করেছে স্থানীয় ভারতীয়রা।

২০১৭ সালের জুলাই আগস্ট মাসে রাস্তা তৈরির নাম করে ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে পড়েছিল চীনা সৈন্যরা। বহুবার তাদের ফিরে যাওয়ার কথা বলা হলেও তারা ফিরে যায়নি। তাদের দেশে ফেরাতে ও ভারতে অনুপ্রবেশ রুখতে এই সময় প্রায় ৭২ দিন তাদের উপর নজরদারি চালায় ভারতীয় সেনা। যুদ্ধ পরিস্থিতিও তৈরি হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত যুদ্ধ লাগেনি।

এদিকে, ফের সৈন্য প্রবেশের ঘটনায় বিষয়টি সম্পর্কে জানার পর ভারতীয় সেনার তরফে ব্রিগেডিয়ার লেভেলে দুই দেশের মধ্যে কথাবার্তা হয়। তারপর চীন দু’টি তাঁবু গুটিয়ে নেয়। তবে সব তাঁবু এখনও তুলে নেয়নি চীন। যে কারণে বিশেষজ্ঞরা সংঘাতের আশঙ্কা করছেন।

এ ঘটনার পর মোদি সরকারের ব্যাপক সমালোচনা করেছে কংগ্রেস। তাদের দাবি, ডোকলাম সমস্যা নিয়ে চীনের কাছে মাথানত করেছে ভারত। যে কারণে আবারও চীন ভারতের অভ্যন্তরে ঢুকতে সাহস পেয়েছে। তবে বিজেপির পক্ষ থেকে এ বিষয়ে কোনো প্রতিবাদ করা হয়নি। তারা আলোচনার মাধ্যমেই সমস্যা সমাধান করতে চাচ্ছে।

ad