পেটের গ্যাস দূর করুন এই ৭ সহজ উপায়ে

হজমের সমস্যায় ভোগেননি, এমন মানুষ মনে হয় খুঁজে পাওয়া যাবে না। তার সঙ্গে যদি জুড়ে বসে গ্যাস-অম্বলের সমস্যা। তবে আপনি চাইলে সহজ কিছু উপায়েই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। জেনে নেই সেই উপায়গুলি।

• প্রত্যেক দিন নির্দিষ্ট সময়ে খাবার খেতে পারেন। এতে শরীর তৈরি থাকবে খাবার হজমের জন্য।

• খাবারের মধ্যে কিছু পরিমাণ প্রোটিন রাখতে পারেন। এতে অ্যাসিড কাজে লেগে যাবে। প্রোটিন মানেই কিন্তু মাংস নয়। দুধ, ডাল, ছানা ইত্যাদি খাবার রাখতে হবে রোজকার খাদ্যতালিকায়।

• খেতে বসার মিনিট দশেক আগে এক গ্লাস পানি খেয়ে নিন। এতে অতিরিক্ত অ্যাসিড ওয়াশ আউট হয়ে যাবে। ফলে অ্যাসিডিটির সমস্যা থেকে রেহাই পেতে পারেন।

• যাঁদের অ্যাসিডিটির ধাত আছে, তাঁদের অ্যান্টাসিড খেতে হবে। সকালের দিকেই সাধারণত অ্যান্টাসিড খেয়ে থাকেন বেশির ভাগ মানুষ। কিন্তু সেটা রাতে খেতে বসার আগে খেলেই বেশি কাজ হয়। সকালের পরে যেহেতু মানুষ দাঁড়িয়ে, বসে থাকে বা হাঁটাচলা করে, ফলে অ্যাসিড রিফ্লাক্সের সম্ভাবনা কম থাকে। বরং রাতে শুয়ে পড়লে উপরের দিকে অ্যাসিড উঠে আসার সম্ভাবনা বেশি। তাই রাতে অ্যান্টাসিড খেলেই উপকার বেশি।

• প্রথমেই জেনে রাখতে হবে, বাঁধাকপি, ফুলকপি, পেঁয়াজ, রুটি, পালং শাক ইত্যাদি খাবারে গ্যাস বেশি হয়। এই ধরনের খাবার খেতে হলে দিনের প্রথমার্ধে খাওয়াই ভাল।

• রাতে রুটি খেলে ডিনার সারতে হবে রাত ন’টার মধ্যে। খেয়ে উঠে হাঁটার অভ্যেস থাকলে ভালো। ব্যায়াম ও শারীরচর্চা নিয়মিত জরুরি। নিজেকে যত সচল রাখবেন, গ্যাস তত কম হবে।

• দুধ ও দুগ্ধজাতীয় খাবার অর্থাৎ পনির, ছানা, চিজ় খেলেও গ্যাস হয়। সে ক্ষেত্রে চিন্তা নেই। ল্যাকটো-এনজ়াইম খেয়ে নিতে পারেন। কোনও সাইড এফেক্ট নেই।

মন্তব্য লিখুন :