এতিমখানা দুর্নীতি: খালেদার জামিনের মেয়াদ বেড়েছে

Khaleda, two cases, bail, one case, dismissed,
ad

জাগরণ ডেস্ক: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় ৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত হয়ে জেলে বন্দী খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ আরও ১ সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে

বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) বেলা ১১টা থেকে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাই কোর্ট বেঞ্চে এ শুনানি শুরু হয়।

শুনানি শেষে খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়িয়ে ১৯ জুলাই করা হয়েছে। এর আগে হাইকোর্ট তাকে চার মাসের জামিন দিয়েছিল, যা আজ (১২ জুলাই) শেষ হয়েছে। একই সঙ্গে আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত আপিল শুনানি মুলতবি করেছেন আদালত।

বেগম জিয়ার পক্ষে আইনজীবী আবদুর রেজাক খান পেপারবুক থেকে মামলার এজাহার পড়ে শোনান। এ জে মোহাম্মদ আলী, মওদুদ আহমেদ, জয়নুল আবেদীন ও মাহাবুব উদ্দিন খোকন উপস্থিত ছিলেন আদালতে।

রাষ্ট্রপক্ষে সংশ্লিষ্ট আদালতের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ফরহাদ আহমেদ ও দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান আপিল শুনানিতে আছেন।

এদিকে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ এ মামলার আপিল ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করার যে আদেশ দিয়েছিল, তা পুনর্বিবেচনার জন্য একটি আবেদন করেছিলেন খালেদা জিয়া আইনজীবীরা।

এ বিষয়ে শুনানি করে আপিল বিভাগ বৃহস্পতিবার বলেছে, আপিলের শুনানি ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে শেষ না হলে ওই রিভিউ আবেদন বিবেচনা করা হবে।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি মামলাটিতে খালেদা জিয়ার পাঁচ বছর কারাদণ্ড হয়। একইসঙ্গে, খালেদা জিয়ার ছেলে ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ অপর পাঁচ আসামীকে ১০ বছর করে দণ্ড দেয়া হয়।

রায় ঘোষণার ১১ দিন পর ১৯ ফেব্রুয়ারি বিকালে রায়ের অনুলিপি হাতে পান খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। এরপর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় ২০ ফেব্রুয়ারি এ আবেদন দায়ের করা হয়।

১২ মার্চ খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দেন হাইকোর্ট। পরে সে জামিন বহাল রেখে এই মামলার রায়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার করা আপিল ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে নিষ্পত্তির জন্য হাইকোর্ট বেঞ্চকে নির্দেশ দেন আপিল বিভাগ।

ad