‘গাড়ি ভাঙচুর ও পোড়ানোর সঙ্গে স্বার্থন্বেষী মহল জড়িত’

Jagoran- Asaduzzaman Khan Kamal
ad

জাগরণ ডেস্ক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আন্দোলনের সময় গাড়ি ভাঙচুর ও পোড়ানোর সঙ্গে স্বার্থন্বেষী মহল জড়িত। সড়কে শিক্ষার্থীদের অবস্থান বেশিদিন দীর্ঘ হলে স্বার্থান্বেষী মহল সুযোগ নিতে পারে। রাজপথে থাকা কোমলমতি শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করছে, তারাও ভাঙচুরে পক্ষে নয়। কিন্তু গত চারদিনে মোট ৩০৯টি গাড়ি ভাঙচুরের শিকার হয়েছে, আটটি গাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

বুধবার (১ আগস্ট) সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে বাস মালিক ও পরিবহন শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠক শেষে এক বিফ্রিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাস চাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সকল দাবি পর্যায়ক্রমে মেনে নেয়া হবে। ঢাকায় কোন ফিটনেসবিহীন, লাইসেন্সবিহীন গাড়ি চলাচল করতে দেয়া হবে না।

তিনি বলেন, আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে সরকার ব্যবস্থা নেবে। আমরা মনে করি, তাদের দাবিগুলোর সবই যৌক্তিক। তাদের দাবিগুলি আমরা আমলে নিয়েছি এবং সবগুলি দাবি পূরণের জন্য আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। দেশব্যাপী স্টার্টিং পয়েন্টে (বাস টার্মিনাল) গাড়ির ফিটনেস, রুট পারমিট, ড্রাইভারের লাইসেন্স পরীক্ষা করা হবে।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, গাড়ির ফিটনেস না থাকলে সেটি টার্মিনাল থেকে বের হতে দেয়া হবে না। একইভাবে চালকেরও লাইসেন্স পরীক্ষা করা হবে।নিরাপত্তা বাহিনী রাস্তায় থাকবে। যে গাড়িটি সন্দেহ হবে, সেটিকেই তারা চ্যালেঞ্জ জানাবে। সব কিছু ঠিকঠাক দেখাতে না পারলে তা আটকে দেয়া হবে। এছাড়া, শ্রমিক ও গাড়িচালকদের মাঝে সচেতনতা বাড়াতে মালিকরা ব্যবস্থা নেবেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, জনগণের দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে এই অবরোধ তুলে নিয়ে ঘরে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। এ বিষয়ে সরকার সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও অভিভাবকদের সহযোগিতা চায়। আপনারা আপনাদের সন্তানদের, শিক্ষার্থীদের ঘরে-ক্লাসে ফিরিয়ে নিন। সরকার সব দাবি মেনে নিয়েছে, এগুলো পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা ছাত্র-ছাত্রীদের বলবো, তোমাদের সমবেদনা দেশব্যাপী পৌঁছেছে। আমরাও সমব্যথী। তোমাদের দাবি সবই মানা হয়েছে। যারা ঘাতক, যারা অন্যায় করেছে, আইন অনুযায়ী, যাতে তরা সর্বোচ্চ শাস্তি পায় সেই ব্যবস্থাই আমরা করছি। শিক্ষার্থীরা এবার অবরোধ তুলে নেবেন বলেই আমরা মনে করছি। আমাদের ছোট ছোট শিশুরাও গাড়ি ভাঙচুর করতে চায় না।

ad