ঢাকা-সিলেট রুটে বাস ধর্মঘট

Bus dhormoghot
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: পরিবহন শ্রমিক নেতাদের চাঁদাবাজির প্রতিবাদে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাস ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন মালিকরা।

ঢাকা-সিলেট লাক্সারি চেয়ারকোচ বাস মালিক সমিতির ব্যানারে এ ধর্মঘটের ডাক দেয়ার পর শুক্রবার (৪ মে) কোনো বাস ছেড়ে যায়নি টার্মিনাল থেকে। সকালে অনেককেই বাস না পেয়ে আবার বাড়ি ফিরতে দেখা গেছে।

ঢাকা-সিলেট লাক্সারি চেয়ারকোচ বাস মালিক সমিতির সিলেটের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন আমাদের কাছ থেকে নিয়মিত ৩০ টাকা চাঁদা নিচ্ছে। তাছাড়া একটি শাখা সংগঠনকেও ২০ টাকা চাঁদা দেয়া হচ্ছে। এই ৫০ টাকা দেয়ার পরও তারা আমাদের সাথে কোনোরকম আলোচনা না করেই চাঁদার পরিমাণ আরও ২০ টাকা বাড়িয়ে দিলেন। আমরা বাস বন্ধ রেখে এরই প্রতিবাদ করছি মাত্র।

এই কর্মকর্তা জানান, আজ বিকাল ৪টার সময় শ্রমিক সংগঠনগুলোর সাথে আমাদের বৈঠক হবে। বৈঠকে কোনো অগ্রগতি না হলে ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।

ঢাকা-সিলেট লাক্সারি চেয়ারকোচ বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জয়নাল মিয়া দৈনিক জাগরণকে জানান, আমাদের সাথে কোনো প্রকার আলাপ আলোচনা না করেই সিলেটের শ্রমিক সংগঠন চলমান ৫০ টাকা চাঁদাকে বর্ধিত করে ৭০ টাকা করেছেন। তারই প্রতিবাদে আমরা এ ধর্মঘটের ডাক দিয়েছি। সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত এ ধর্মঘট চলবে।

সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সেলিম আহমদ ফলিক দৈনিক জাগরণকে বলেন, আমরা শ্রমিকদের কল্যানেই চাঁদার পরিমাণ বৃদ্ধি করেছি। বর্ধিত চাঁদা শ্রমিকদের জীবন-মান উন্নয়নে ব্যয় করা হবে।

হঠাৎ করে ডাকা এ ধর্মঘটের কারণে বিপাকে পড়েছেন যাত্রীরা। শুক্রবার সকাল থেকে বৃষ্টি উপেক্ষা করে তারা টার্মিনালে গিয়ে আবার ফিরে আসতে বাধ্য হচ্ছেন। অনেকেই আবার সাপ্তাহিক ছুটির সাথে শবে বরাত এবং মে দিবসের ছুটি কাটিয়ে ঢাকায় ফিরতে গিয়ে এই বিড়ম্বনায় বিচলিত হয়ে উঠেছেন। কর্মস্থলে ফিরতে অনেকেই বিকল্প ব্যবস্থায় ঢাকার উদ্দেশ্যে সিলেট ত্যাগ করছেন।

ad