ধর্ম অবমাননার অভিযোগে জাবি ছাত্র গ্রেফতার

arrest
ad

জাগরণ ডেস্ক: ধর্ম অবমাননার অভিযোগে তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পল্লব আহমেদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার ভোরে মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় উপজেলা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত পল্লব আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (আইবিএ) ৪০তম আবর্তনের শিক্ষার্থী। তার বাড়ি মানিকগঞ্জের ঘিওর থানায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের ৪২তম আবর্তনের শিক্ষার্থী ইমরান ফয়সাল বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘পল্লব আহমেদ গত ২৪মে মহানবী (সাঃ) কে কটূক্তি করে ফেসবুকে একটি আপত্তিকর স্ট্যাটাস দেয়। এতে ক্যাম্পাসে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। সবার পরামর্শে মামলাটি করা হয়েছে।’

গত ২৪ মে সকাল ৯টা ২৮ মিনিটে পল্লব আহমেদ তার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেয়। স্ট্যাটাসটি অনুরুপ, ‘ধর্মীয় জঙ্গিবাদের আবিষ্কারক তথাকথিত মহানবী, শেষনবী/রাসূল হযরত মোহাম্মদ। **ব্যাখ্যা পরবর্তী সংস্করণে।’

এরপর স্ট্যাটাসটি মুছে ফেলে পরদিন ২৫মে সন্ধ্যা ৭টা ১৯ মিনিটে দেওয়া স্ট্যাটাসে ক্ষমা প্রার্থনা করে বলেন, “আমি অতীব দুঃখিত, বক্তব্যটা রাখার সময় তা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানতে পারে সেটা বিবেচনায় না আনায় আমি সত্যই দুঃখিত। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা আমারও অপছন্দ। কিন্তু দুর্ঘটনাবশত আমার দ্বারা এমন কাজ হয়ে যাওয়ায় সত্যিই খুব দুঃখিত। আরও দুঃখিত নিজের সঙ্গে সংগঠন, হল বন্ধু-বান্ধব, সিনিয়র, জুনিয়র, পিতা-মাতা, আত্মীয়-স্বজনদের বিব্রততকর পরিস্থিতিতে ফেলার জন্য। বক্তব্যটা একান্তই আমার নিজস্ব মতামত ছিল। কারও প্রভাবের জন্য নয়।”

শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘৫৭ ধারার মামলায় গ্রেফতারকৃত এই ছাত্রকে আগামীকাল আদালতে পাঠানো হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমার সাহা বলেন, ‘পুলিশ এ বিষয়ে আমাদের এখনও কিছু জানায়নি। ঘটনা মাত্র শুনলাম।’

উল্লেখ্য, এই ঘটনায় প্রথমে আশুলিয়া থানায় জিডি করা হয়েছিল। পরবর্তীতে শিবালয় থানা থেকে গ্রেফতার করা হলে এই থানায় মামলা দায়ের হয়।

ad