ধর্ষণের শিকার তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা!

Child rape, ,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুরে তৃতীয় শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রী (১২) ধর্ষণের পর অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। গত দুইমাস ধরে তার মাদ্রাসায় যাওয়া বন্ধ রয়েছে। এমনকি ঘটনাটি প্রকাশ করলে তাকে মেরে ফেলার হুমকিও দেয়া হয়েছে বলে দাবি তার পরিবারের।

অভিযুক্ত ধর্ষক শ্রীপুর উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের সাইটালিয়া গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে আমান উল্লাহ (২৬)। এক সন্তানের জনক আমান উল্লাহ মুলাইদের নাভিদ সোয়েটার কারখানার শ্রমিক।

ওই ছাত্রী জানায়, আমান উল্লাহ তাকে মাদ্রাসায় যাওয়া-আসার সময় একাধিকবার ধর্ষণ করেছে।

সম্প্রতি শারীরিক গঠনে পরিবর্তন আসলে সে তার মাকে ঘটনাটি খুলে বলে। পরে স্বাস্থ্য পরীক্ষার করলে অন্তঃসত্ত্বা ধরা পড়ে। এরপর ছাত্রীর রিক্সাচালক বাবা ঘটনাটি স্থানীয় মাতব্বরদের জানালে তারা থানায় অভিযোগ না করে আপোষের প্রস্তাব দেয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাতব্বর ও তেলিহাটি ইউনিয়ন ওলামা দলের সভাপতি মাওলানা আবুল কালাম আজাদ বলেন, মেয়েটি দরিদ্র পরিবারের সন্তান তাই থানায় না যেতে বলা হয়েছে। আমরা সামাজিকভাবে বসে মীমাংসার চেষ্টা করছি।

শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান জানান, কেউ থানায় এমন কোনো অভিযোগ দেয়নি। ধর্ষণের ঘটনা ঘটে থাকলে আপোষের কোনো সুযোগ নেই।

ad