নরসিংদীতে গোলাপ হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

Court
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: নরসিংদীতে গোলাপ হত্যা মামলায় ছয় আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেছেন আদালত। একই সাথে তাদের দশ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড ও অনাদায়ে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

সোমবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে নরসিংদী অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক একে এম মোজাম্মেল হক চৌধুরী এ আদেশ প্রদান করেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা হলো- নরসিংদী সদর উপজেলার মেহেরপাড়া ইউনিয়নের কুড়েরপাড় গ্রামের টকি মাহমুদের ছেলে আনোয়ার হোসেন, আব্দুল আউয়ালের ছেলে মোশারফ হোসেন, ওমর আলীর ছেলে ফিরোজ মিয়া, আব্দুল আউয়ালের ছেলে জুলহাস মিয়া, আমজাত আলীর ছেলে আকবর আলী ও গনি মিয়ার ছেলে সুন্দর আলী।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৩ সালের ২১ ফেব্রুয়ারী পাঁচদোনা এলাকা থেকে নিখোঁজ হয় নরসিংদী সদর উপজেলার কুড়েরপাড় গ্রামের সাহাজউদ্দিনের ছেলে গোলাপ হোসেন (৩০)। এর তিনদিন পর পাঁচদোনা ব্রহ্মপুত্র নদীর তীরে মাটিতে পুঁতে রাখা অবস্থায় লাশের কিছু অংশ দেখা যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের মাথাসহ ১০টি টুকরা উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই মেহেরপাড়া ইউপি সদস্য মোস্তফা হোসেন বাদী হয়ে নরসিংদী সদর মডেল থানায় ১৫ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নরসিংদী সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক কিশোর কুমার দীর্ঘ তদন্ত শেষে ৭ আসামীর বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

১৫ সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে সন্দেহাতীতভাবে দোষ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক ছয়জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও দোষ সপ্রমাণিত না হওয়ায় মোস্তাফিজুর নামে একজনকে বেকসুর খালাস দেন।

ad