পাবনায় ছাত্রলীগ নেতার হাতে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার লাঞ্ছিত!

Pabna CL Neta Shamim Ahmed
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: বাবার নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অন্তর্ভুক্ত না করায় পাবনার সুজানগর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের ডেপুটি কমান্ডারকে লাঞ্ছিত করেছে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শামীম আহমেদ লিটন।

সোমবার (২৯ মে) রাতে উপজলো মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল কার্যালয়ে ঢুকে ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হাইকে শারিরীকভাবে লাঞ্ছিত করে।

পরে সুজানগর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের রোকন উপস্থিত হয়ে উপজেলা ডেপুটি কমান্ডার হাইকে উদ্ধার করেন।

ছাত্রলীগ সভাপতি লিটন চর সুজানগর গ্রামের বাসিন্দা। তার বাবার নাম হোসেন আলী সরদার।

উপজলো চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের রোকন বলনে, ছাত্রলীগ নেতা শামীম তার বাবার নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করাকে কেন্দ্র করে ডেপুটি কমান্ডার হাইকে লাঞ্ছিত করে।

তিনি আরও বলেন, আমার জানা মতে শামীমের বাবার নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় নেই। সে তার বাবার নাম অন্তর্ভুক্ত করতে চাইলে আব্দুল হাই তাকে বাঁধা দেয়। তখন শামীম দলবল নিয়ে আব্দুল হাইকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে।

এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হাই আক্ষেপ করে বলেন, আমি স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। শামীমের বাবার নাম কোন সময় কোন মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় ছিল না। আমিতো জোর করে তালিকায় তার নাম দিতে পারি না। বিষয়টি নিয়ে আমার কিছুই বলার নেই। সে আমার ছেলের বন্ধু। আমি এ ঘটনায় খুবই লজ্জিত।

আব্দুল হাইয়ের ভাই আব্দুল আলিম জানান, এ বিষয়ে মামলা করার কোন সিন্ধান্ত নেয়া হয়নি, তবে সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে পরে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এদিকে, লাঞ্ছিত করার বিষয়টি অস্বীকার করে ছাত্রলীগ নেতা শামীম বলেন, আমি শারীরিকভাবে তাকে লাঞ্ছিত করিনি। তবে আমার সঙ্গে থাকা কয়েকজন উপজেলা ছাত্রলীগ কর্মী তার ওপর চড়াও হয়েছিল।

ad