পাহাড়ি ঢলে চুনারুঘাটে পানিবন্দি কয়েক হাজার মানুষ

Habiganj
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে করে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন ৭/৮ টি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ। সেই সাথে ভেঙে পড়েছে বেশ কিছু কাঁচা ঘরবাড়ি।

জানা যায়, গত কয়েকদিনের প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে উপজেলার বাল্লা সীমান্তবর্তী এলাকায় খোয়াই নদীর বাঁধ ভেঙে ৭/৮টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে যায়। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েন ওই এলাকার কয়েক হাজার মানুষ। সেই সাথে ভেঙে পড়ে ৩০/৩৫টি কাচাঁ ঘরবাড়ি।

এদিকে, ঢাকা-সিলেট পুরাতন মহাসড়কের ছন্ডিছড়া এলাকায় পানির প্রবল স্রোতে রাস্তাটি ভেঙে গেছে। সোমবার রাতে রাস্তাটি পানির স্রোতে ভাসিয়ে নিয়ে যায়। ফলে শায়েস্তাগঞ্জ-চুনারুঘাট-মাধবপুর সড়কে সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।

অপরদিকে, আমু চা বাগান থেকে আমুরোড যাওয়ার বিকল্প সড়কটিও পানিতে তলিয়ে গেছে। এ অবস্থায় উপজেলার ৩টি চা বাগানসহ ঐ এলাকার হাজার হাজার মানুষ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে চন্ডিছড়া চা বাগানের ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলাম জানান, সোমবার বিকট শব্দে ব্রীজটির দক্ষিণাংশের সড়ক ভেঙে যায়। এতে পানিতে ভাসিয়ে নিয়ে গেছে প্রায় ৬০ ফুট সড়ক।

আহম্মদাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবেদ হাসনাত চৌধুরী জানান, চুনারুঘাট উপজেলার হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

তিনি বলেন, চুনারুঘাটে বাল্লা এলাকায় এখনও হারিয়ে যাওয়া অনেক মাটির ঘর রয়েছে। কিন্তু বন্যার কারণে ওই এলাকার প্রায় ৩০/৩৫টি মাটির ঘরে ভেঙে পড়েছে।

তিনি আরও বলেন, মাটির ঘরগুলো ভেঙঙে গেলেও কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তাছাড়া তাদেরকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহি অফিসার সিরাজাম মুনিরা জানান, ঢাকা-সিলেট পুরাতন মহাসড়কের ছন্ডিছড়া এলাকা রাস্তা সম্পূর্ণ ভেঙে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। তাছাড়া উপজেলার বেশ কিছু রাস্তাঘাট বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে।

ad