ফুলবাড়ী সীমান্তে টিনশেড ঘর নির্মাণের নির্দেশ বিজিবির

ফুলবাড়ী সীমান্ত
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে বিএসএফের অভিযোগ পেয়ে বাংলাদেশী নাগরিকদের বাড়ির পাকা বাড়ি নির্মাণ বন্ধ করে টিনশেড ঘর নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছে বিজিবি।

শুক্রবার (২৭ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বিজিবি-বিএসএফ পতাকা বৈঠকে পাকা বাড়ির পরিবর্তে টিনশেড ঘর নির্মাণে একমত হয় দুদেশের সীমান্ত প্রহরীরা।

সীমান্তবাসী ও বিজিবি জানায়, ফুলবাড়ীর খলিশাকোটাল সীমান্তে আন্তর্জাতিক মেইন পিলার ৯৩৫ এর পাশে বাংলাদেশ অংশে নো-ম্যান্স ল্যান্ডে মফছার আলী এবং নুর ইসলাম নিজেদের বাড়িতে ইটের তিন ফুট উঁচু দেয়ালঘর নির্মাণ শুরু করেন।

ভারতের কোচবিহার জেলার দিনহাটা থানার বসকোটাল ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা বিষয়টি জানতে পেয়ে বালারহাট ক্যাম্পের বিজিবির কাছে পাকা ঘর নির্মাণ বন্ধের দাবি জানায়। পরে বিকালে বিজিবি বাড়ি তৈরীর কাজ বন্ধ করে দেয়।

বিজিবি জানায়, সীমান্তের আন্তর্জাতিক মেইন ৯৩৫ নম্বর এর ৫নং সাব পিলারের পাশে বিজিবি-বিএসএফ পতাকা বৈঠক হয়। বৈঠকে বিজিবির পক্ষে বালারহাট বিওপি কমান্ডার নায়েব সুবেদার নজরুল ইসলাম এবং বসকোটাল বিএসএফ ক্যাম্পের ইন্সপেক্টর গোবেন্দ্র সিং নেতৃত্ব দেন। বৈঠকে ইটের পরিবর্তে টিনসেড ঘর নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়।

লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি ব্যাটলিয়নের শিমুলবাড়ী কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার ফজলুল হক জানান, সীমান্ত আইন অনুযায়ী জিরো লাইন থেকে ১৫০ গজের মধ্যে পাকা স্থাপনা করার নিয়ম নেই। বিএসএফের অভিযোগের ভিত্তিতে পাকা স্থাপনার নির্মাণ বন্ধ করে টিনসেড ঘর তৈরির নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ad