বদি মাদকের গডফাদার তার প্রমাণ কি: কাদের

Badi, Drug, Godfather, Evidence, Kader,
ad

জাগরণ ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বদি মাদকের গডফাদার, আপনি কি সরাসরি এভাবে বলতে পারেন? প্রমাণ কি? আরও অনেক বদি এ দেশে আছে। প্রমাণিত হলে বদিকেও ছাড় দেয়া হবে না।

রবিবার (৩ জুন) সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মেট্রোরেল রুট-৬ নির্মাণ প্রকল্পের প্যাকেজ-৭ এর চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় কি র‌্যাবের বড় অফিসার বাদ গেছে? ফাঁসির অর্ডার পর্যন্ত হয়েছে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। প্রধানমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রীর ওপর আস্থা রাখুন।

তিনি বলেন, কক্সবাজারের টেকনাফে নিহত পৌর কাউন্সিলর একরাম যদি নির্দোষ প্রমাণিত হন, তাহলে তাকে যারা দোষী সাব্যস্ত করেছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বাংলাদেশের মাদকবিরোধী অভিযান জাতিসংঘ পর্যবেক্ষণ করছে। জাতিসংঘের পর্যবেক্ষণ করার অধিকার আছে, পর্যবেক্ষণ করুক। তবে মাদক নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চলবে। কোনো আন্তর্জাতিক চাপের কাছে সরকার নতি স্বীকার করবে না। আমরা নতিস্বীকার করবো বাংলাদেশের জনগণের চাপের কাছে। এই মাদক নিয়ন্ত্রণের জন্য যতোদিন প্রয়োজন হবে অভিযান চলবে।

কাদের বলেন, বুদ্ধিজীবীরা বিবৃতি দিতে পারেন, সমালোচনা করার অধিকার সবার আছে। কিন্তু আমরা মনে করছি এই মাদকবিরোধী অভিযান সর্বাত্মক রূপ নিয়েছে। দেশের জনগণ এ অভিযানে খুশি। তরুণ সমাজকে ধ্বংস করছে যে মাদক, সুনামির মতো যে মাদক বাংলাদেশের পাড়া মহল্লায় ছড়িয়ে পড়েছে, এ মাদেকের সর্বনাশা ছোবল থেকে তরুণ সমাজকে রক্ষা করার জন্য এ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।

মাদকবিরোধী অভিযান নিয়ে বিএনপির সমালোচনার জবাবে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, তাদের রাজনীতি জনগণের কাছ থেকে সংকুচিত হয়েছে। যে কারণে হতাশা থেকে তারা আবোল-তাবোল বকছে। এই অভিযানে সরকারের জনপ্রিয়তা আরো বেড়ে গেছে।

কাদের আরও বলেন, বিএনপির রাজনীতি হচ্ছে অভিযোগ ও নালিশের রাজনীতি। তাদের আর কোনো সম্বল নেই। তারা শুধু অভিযোগ করতে জানে নালিশ করতে জানে। তারা নির্বাচনে অংশ নেয়নি, এখন তারা সেই ভুলের খেসারত দিচ্ছে। আন্দোলন করতে চেয়েছে, ব্যর্থ হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, কাজেই সামালোচকরা সমালোচনা করুক, আমরা আমাদের কাজ করে যাচ্ছি জনগণের দিকে তাকিয়ে, বাংলাদেশের ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে। তরুণরাই হচ্ছে বাংলাদেশের ভবিষ্যত। এরা নষ্ট হয়ে গেলে বাংলাদেশের ভবিষ্যত নষ্ট হয়ে যাবে। এ কারণে আমরা এ অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি, দেশের স্বার্থে-জনগণের স্বার্থে।

ad