বাজেটে রোহিঙ্গাদের জন্যে বরাদ্দ ৪৬০ কোটি টাকা: অর্থমন্ত্রী

muhit
ad

জাগরণ ডেস্ক: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, আসন্ন বাজেটে রোহিঙ্গাদের জন্যে ৪৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হবে। এবারের বাজেটের আকার চার লাখ ৬০ হাজার কোটি টাকার কম বেশি হবে। প্রকৃত ফিগার আমি এই মুহূর্তে বলতে পারছি না।

সোমবার (৪ জুন) বিকাল পৌনে ৪টার দিকে সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, এবারের বাজেটে নতুন করে কোনো কর আরোপ হবে না। এটাই আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে জনগণের জন্য সুখবর। বেসরকারি খাতে পেনশন ব্যবস্থার বিষয়ে বাজেটে রূপরেখা থাকবে। গত ১০ বছরে জিনিসপত্রের দাম বাড়েনি। এবারও বাড়বে না। দেশবাসীর জন্যে এটি আমার এবারের সুসংবাদ।

তিনি বলেন, এবারের বাজেটে ভ্যাটকে ৯ স্তর থেকে পাঁচ স্তরে নামিয়ে আনা হবে। সর্বোচ্চ হার হবে ১৫ শতাংশ। আগামী বছর পাঁচ স্তর থেকে তিন স্তরে নামিয়ে আনা হবে। সিগারেট ও মোবাইল কোম্পানির জন্য করপোরেট ট্যাক্স ৪৫ শতাংশ অপরিবর্তিত থাকবে।

এছাড়া, ব্যাংকসহ লিস্টেড-আনলিস্টেড সব কোম্পানির ক্ষেত্রে করপোরেট ট্যাক্সের সর্বোচ্চ হার ৩৭.৫ শতাংশ হবে বলে জানান অর্থমন্ত্রী।

আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, আমাদের রাজস্ব আহরণকারী সংস্থা এনবিআরের লোকজনের মন মানসিকতায় পরিবর্তন হয়েছে। একইসঙ্গে আইনেও জটিলতা কমানো হয়েছে। তাই বেশি সংখ্যক মানুষ আয়কর দিচ্ছে। এ খাত থেকেই রাজস্ব বাড়বে।

ad