বঙ্গবন্ধু-২ স্যাটেলাইট তৈরির প্রস্তুতি শুরু হয়েছে

BNP, satellite ownership, PM,
ad

জাগরণ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, একেকটি কৃত্রিম উপগ্রহের আয়ুষ্কাল থাকে ১৫ বছর। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এরও সেই সময় চলে আসবে। এজন্য এখন থেকেই বঙ্গবন্ধু-২ তৈরির প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। বর্তমান সরকার যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে চায়। যখন নতুন যে প্রযুক্তি আসবে, সেটা যেন আমরা ধারণ করতে পারি, সেটা নিয়ে গবেষণা করতে পারি এবং সেটা যেন ব্যবহারোপযোগী হয়, সেই কাজই আমরা করবো।

বুধবার (৬ জুন) জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নোত্তরের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর মালিকানা নিয়ে বিএনপির প্রশ্ন তোলা লজ্জাজনক। যারা অর্বাচিনের মতো কথা বলে তারা দেশ চালালে দেশের উন্নতি হবে কিভাবে? এর মালিকানা কোনো ব্যক্তির নয়; এর মালিক বাংলাদেশ সরকার। বিএনপির প্রযুক্তি সম্পর্কে কোনো ধারণাই নেই।

তিনি বলেন, স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণে দেশে-বিদেশে সব বাঙালী খুশিতে উদ্বেলিত। খুশিতে সকলের চোখে আনন্দ অশ্রু। আমরা খুশিতে চোখের পানি রাখতে পারিনি। সব মানুষ যখন এতো খুশি, বিএনপির কেন দুঃখ?

শেখ হাসিনা বলেন, তাদের চিন্তাভাবনা এত সংকীর্ণ যে এই অঞ্চলে যখন সাবমেরিন ক্যাবল আসে তখন বিনা পয়সায় দেওয়া হলেও বিএনপি সরকার তথ্য পাচার হবে বলে তারা সেটি নিল না। এই কথা বলে আমাদেরকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়েছিল। জানি না বিএনপির কাছে কি এমন গোপন তথ্য থাকে যে কুক্ষিগত রাখতে চায়।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, সরকার যেভাবে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মালিক হয় সেইভাবে আমরা এর মালিক হয়েছি। তবে এটি ব্যবহার করার ক্ষেত্রে যারা যতটুকু ভাড়া নেবে তারা ততটুকু মালিক হবে। দুটি ব্যক্তি তো এর মালিক হতে পারে না। এ ধরনের মন্তব্য করাটাও লজ্জাজনক। এ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ আওয়ামী লীগের নির্বাচনী অঙ্গীকার পূরণেরই অংশ।

শান্তি নিকেতনে রোহিঙ্গা সংকট এবং তিস্তা চুক্তিসহ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে বৈঠকের পর ভাষণে শেখ হাসিনা বলেছিলেন, দুই দেশের মধ্যে বহু সমস্যার সমাধান হয়েছে। কিছু সমস্যা এখনো অমিমাংসিত রয়ে গেছে। তবে সেসব বিষয় তুলে এই সুন্দর অনুষ্ঠানকে ম্লান করতে চাই না।

প্রধানমন্ত্রীর এ উক্তি উল্লেখ করে ফখরুল ইমাম বলেন, কিছু না বলেই অনেক কিছু বলে গেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। এই না বলা কথা কি শুনতে পারি? এটা কিন্তু গোপন তথ্য নয়।

তখন রসিকতার সুরে প্রধানমন্ত্রী জবাব দেন, আমি শুধু এটুকু বলবো, না বলা কথা রবে না গোপনে।

ad