ভালুকায় বোমা বিস্ফোরণে নিহতের পরিচয় মিলেছে

valuka bomb explosion, 1 dead,
ad

জাগরণ ডেস্ক: ময়মনসিংহের ভালুকায় একটি বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহতের পরিচয় পাওয়া গেছে। নিহত ব্যক্তির নাম মো. আলম প্রামাণিক (৩৫)। তার বাড়ি নাটোর সদর উপজেলার তেলকুপি এলাকায়। 

সোমবার (২৮ আগস্ট) ময়মনসিংহ পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সুতার ব্যবসায়ী পরিচয় দিয়ে স্ত্রী পারভীন আক্তার ও দুই ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে গত ২৪ অাগস্ট ভালুকা উপজেলার হবিবাড়ি ইউনিয়নের কাশর এলাকার ওই বাড়িতে ওঠেন আলম।

সৈয়দ নুরুল ইসলাম জানান, সকাল সাড়ে ১০টার ঢাকা থেকে পুলিশের বোমা নিস্ক্রিয়কারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এরপর তারা বোমা নিস্ক্রিয় কাজ শুরু করে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে নিরাপদ দূরত্বে সাংবাদিকসহ সবাইকে সরে যেতে বলা হয়। সেখানে নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছেন র‌্যাব, ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের যৌথবাহিনী।

এর আগে রবিবার (২৭ আগস্ট) দিবাগত রাতে বিস্ফোরণের ঘটনায় বাড়ির মালিকসহ সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলো– বাড়ির মালিক আজিম উদ্দিন, তার স্ত্রী ফাতেমা, তাদের দুই ছেলে আশিক ও হাসান এবং বিস্ফোরণে নিহত ব্যক্তির স্ত্রী ও দুই সন্তান। তবে তাদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

পুলিশ, র‌্যাব ও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এবং পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল বাড়িটি ঘিরে অভিযান চালাচ্ছে।

উল্লেখ্য, রবিবার (২৭ আগস্ট) সন্ধ্যা ৬টার দিকে ভালুকা পজেলার হবিবাড়ি ইউনিয়নের কাশর এলাকায় বাড়িটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

ময়মনসিংহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুরে আলম বলেন, বেলা আড়াইটার দিকে আধা-পাকা ওই বাড়িতে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। ধারণা করা হচ্ছে বোমা বানানোর সময় সেটি বিস্ফোরিত হয়েছে। ঘরের ভিতর একজনের রক্তাক্ত নিথর দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

বাড়ির মালিক আজিমুদ্দিন জানিয়েছেন, আনুমানিক ৩০ বছর বয়সী নিহত ওই যুবক স্ত্রী ও এক ছেলে শিশুকে নিয়ে গত ২২ আগস্ট ঘরটি ভাড়া নিয়েছিলেন। তবে তিনি নিহত ব্যক্তির নাম ঠিকানা বলতে পারেননি।

স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার বিরুই গ্রামের নুর মোহাম্মদের ছেলে মালয়েশিয়া প্রবাসী আজিম উদ্দিন উপজেলার কাশর গ্রামে বাড়ি নির্মাণ করে তাতে ১০/১২টি পরিবারকে ভাড়া দেন।

ad