মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত মাওলানা সুবহানের আবারও জামিন নামঞ্জুর

Maulana Subhan, bail, disgraced,
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মাওলানা আব্দুস সুবহানের বিরুদ্ধে পাবনার একটি হামলা-ভাঙচুরের মামলায় জামিন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। এ সময় মাওলানা আব্দুস সুবহান কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

বুধবার (২১ জুন) এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো তার জামিন নামঞ্জুর করা হলো।

আজ মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য থাকলেও কোনো সাক্ষী আদালতে হাজির হয়নি। তাই মামলার সকল সাক্ষীর বিরুদ্ধে সমন জারি করে পরবর্তী শুনানির দিন আগামী ১০ অক্টোবর তাদের হাজির হওয়ার আদেশ দেন আদালত।

আসামীপক্ষের প্রধান আইনজীবী সুলতান মাহমুদ খান এহিয়া জানান, দুপুর ৩টায় মাওলানা সুবহানের পক্ষে জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবীরা। পাবনার আমলী আদালত-১ এর বিচারক অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মো. রেজাউল করিম শুনানি শেষে জামিন নামঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ১১ এপ্রিল প্রথমবারের মতো এই মামলায় মাওলানা সুবহানের পক্ষে জামিন আবেদন করা হলে তা নামঞ্জুর করে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন আদালত।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০০৩ সালের ৩০ আগষ্ট পাবনা সদর উপজেলার চরতারাপুর ইউনিয়নের তিনটি গ্রামের ১৮২টি বাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। সেই ঘটনার সাথে জড়িত অভিযোগে ৭নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল কুদ্দুস বাদী হয়ে মাওলানা সুবহানকে প্রধান আসামী করে ৩১ জনের বিরুদ্ধে ২০১২ সালের ২ এপ্রিল পাবনা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন (মামলা নং ১৩৬)।

মামলার তদন্ত শেষে একই বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর ২৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করে মাওলানা সুবহানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

এরপর ২০১২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর ঢাকা থেকে পাবনা যাবার পথে সিরাজগঞ্জের বঙ্গবন্ধু সেতুর টোল প্লাজা এলাকা থেকে মাওলানা সুবহানকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

উল্লেখ্য, মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় ২০১৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি তাকে ফাঁসির আদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

ad