মৌলভীবাজারে দুই জঙ্গি আস্তানায় অভিযান: গুলি ও বিস্ফোরণ

Moulvibazar, militant hideout, mission
ad

স্থানীয় প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের দুটি এলাকায় দুই জঙ্গি আস্তানা ঘিরে অভিযানে নেমেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। সেখান থেকে গোলাগুলি এবং বিস্ফোরণের শব্দও শোনা যাচ্ছে। নাসিরপুর গ্রামের জঙ্গি আস্তানা থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের লক্ষ্য করে গ্রেনেড ছুঁড়েছে জঙ্গিরা। 

মঙ্গলবার (২৮ মার্চ) গভীর রাত থেকে বাড়ি দুটি ঘিরে রেখেছে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি) ও পুলিশ সদস্যরা।

বুধবার (২৯ মার্চ) সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১০টার মধ্যেও দু’টি জঙ্গি আস্তানায় বিস্ফোরণ ও গুলির শব্দ শোনা যায়। সাড়ে ১০টার দিকে বড়হাটের ‍আস্তানার ভেতরে বিকট শব্দে তিনটি গ্রেনেড বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা। তারপরও কয়েক দফায় বড় হাট ও ফতেহপুরে গুলি এবং বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়।

র‌্যাবের শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের অধিনায়ক এএসপি মাইনুদ্দীন জানান, একটি বাড়ি মৌলভীবাজার পৌরসভার বড়হাট এলাকায়। অন্যটি সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নের সরকার বাজারের কাছে ফতেহপুর গ্রামে।

সিটিটিসির এডিসি মো. সাইফুল ইসলাম জানিয়েছেন, মৌলভীবাজারে দুটি আস্তানায় জঙ্গিদের হাতে বিপুল অস্ত্র বিস্ফোরক রয়েছে। সেটা মাথায় রেখেই অভিযান চলছে। জঙ্গিরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অবস্থান টের পেয়ে তাদের লক্ষ্য করে গ্রেনেড ছুঁড়ছে। পুলিশ সতর্ক অবস্থান নিয়েছে। ঘেরাও করে রাখা হয়েছে। এই জঙ্গিরা নব্য জেএমবি সঙ্গে কানেকটেড।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান বাড়ি দুটির মালিক সাইফুর সাব্বির ও আতব্বর মিয়া নামের দুই ব্যক্তি। তারা একই পরিবারের সদস্য এবং দুজনেই লন্ডন প্রবাসী। দুই বাড়ির দূরত্ব ১৮ কিলোমিটারের মত।

এদিকে, মৌলভীবাজারের দু’টি জঙ্গি আস্তানায় অভিযানে যোগ দিতে ঢাকা থেকে রওনা দিয়েছে সোয়াট (সর্বাধুনিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্পেশাল উইপন্স অ্যান্ড ট্যাক্টিকস) টিম। বেলা সোয়া ১১টার দিকে সোয়াটের একটি টিম মাইক্রোবাসযোগে ঢাকা থেকে রওনা দেয়।

ad