রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়া শুরু খুব তাড়াতাড়ি: মিয়ানমারের মন্ত্রী

Rohingya, return, very soon, Myanmar minister,
ad

জাগরণ ডেস্ক: বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে খুব তারাতারি ফেরত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির সমাজকল্যাণ এবং ত্রাণ ও পুনর্বাসনমন্ত্রী উইন মিয়াত আয়ে।

বৃহস্পতিবার (১২ এপ্রিল) ঢাকায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠকের পর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

বৈঠক ‘খুবই ফলপ্রসূ’ হয়েছে মন্তব্য করে মিয়ানমারের মন্ত্রী বলেন, আমাদের মূল লক্ষ্য ছিল ক্যাম্পে থাকা বাস্তুচ্যুত লোকজনের সঙ্গে কথা বলা এবং বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ প্রধানত পররাষ্ট্র ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা। এখন আমরা অনেক জটিলতা পেরোতে পারবো এবং আমি নিশ্চিত যত দ্রুত সম্ভব আমরা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু করতে পারবো।

রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেয়া হবে কিনা সে প্রশ্নের জবাবে উইন মিয়াত আয়ে বলেন, মিয়ানমারের আইন অনুযায়ী যত তাড়াতাড়ি তারা ন্যাশনাল ভেরিফিকেশন কার্ড নেবে, তত দ্রুত তারা নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারবে। আইন অনুযায়ী তাদের জাতীয় যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়ার মধ্যে আসতে হবে, যাতে তারপরে তারা নাগরিকত্ব পেতে পারে।

প্রত্যাবাসনের জন্য মিয়ানমারের হাতে রোহিঙ্গাদের যে তালিকা দেয়া হয়েছিল তার যাচাই-বাছাই ‘খুব ধীর গতিতে’ হওয়ার কথা স্বীকার করে মিয়ানমারের এই মন্ত্রী বলেন, এখন আমরা এই প্রক্রিয়া জোরদার করেছি।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা-ইউএনএইচসিআর ও জাতিসংঘ উন্নয়ন তহবিল-ইউএনডিপির সঙ্গে তাদের আলোচনা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, এ বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক প্রস্তাবও করা হয়েছে। আমরা এটা খুব শিগগির চূড়ান্ত করতে পারি। জাতিসংঘের সংস্থাগুলোকে রাখাইন পরিদর্শনের অনুমতি দেয়া হবে।

ad